ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে  (রবিবার) পাঁচটি নির্মাণ প্রকল্পের উদ্বোধন করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী ক্যাম্পাসের ভিন্ন ভিন্ন স্থানে প্রকল্পসমূহের উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনকালে উপাচার্য বলেন, কাজের মাধ্যমে আমরা আমাদের যোগ্যতা প্রমাণ করতে চাই। এখন এ বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মপরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। তিনি বলেন, অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমরা যুদ্ধ ঘোষণা করেছি। ইয়েলো জার্নালিজম পরিহার করে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের জন্য এবং সকল অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে লেখার জন্য সাংবাদিকদের প্রতি তিনি আহ্বান জানান। তিনি আরও বলেন, শীঘ্রই্ ছাত্র এবং ছাত্রীদের জন্য দুইটি করে মোট চারটি আবাসিক হল নির্মিত হবে। স্টেডিয়াম ও সুইমিং পুলও নির্মাণ করা হবে।

উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ শাহিনুর রহমান তাঁর প্রদত্ত বক্তব্যে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়কে আবাসিক বিশ্ববিদ্যালয় হিসাবে গড়ে তোলার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন এবং এক্ষেত্রে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম তোহা বলেন, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য আজ একটি শুভদিন। এ নির্মাণ প্রকল্পে ভূমিকা রাখার সুযোগ পাওয়ায় তিনি কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

পরিকল্পনা ও উন্নয়ন বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক এইচ.এম. আলী হাসান-এর সঞ্চালনায় এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এস.এম আব্দুল লতিফ, পরিবহন প্রশাসক ও ইবি শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন, প্রফেসর ড. মোঃ জাকারিয়া রহমান, প্রক্টর প্রফেসর ড. মোঃ মাহবুবর রহমান, উপ-প্রধান প্রকৌশলী মোঃ আলীমুজ্জামান (টুটুল), তথ্য, প্রকাশনা ও জনসংযোগ অফিসের উপ-পরিচালক মোঃ আতাউল হক, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ইবি শাখার সভাপতি শাহিনুর রহমান শাহিন ও সাধারণ সম্পাদক জুয়েল রানা হালিম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সবশেষে দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

উদ্বোধনকৃত প্রকল্পসমূহ :

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকতর উন্নয়ন-২য় পর্যায় শীর্ষক এ প্রকল্পের অধীনে ৩ কোটি ১৫ লক্ষ টাকা ব্যায়ে ১০তলা শিক্ষক-কর্মকর্তা ভবন প্রথম ফেজ ৫তলা পর্যন্ত নির্মাণ, ৩ কোটি ১১ হাজার ৪ শত টাকা ব্যায়ে ৫তলা প্রভোস্ট হাউজ টিউটর কোয়াটার প্রথম ফেজ ৪তলা পর্যন্ত নির্মাণ, ১ কোটি ৬৭ লক্ষ ১২ হাজার ৫শত ৬৮ টাকা ব্যায়ে মেডিক্যাল সেন্টার দ্বিতলকরণের কাজ, ৩ কোটি ৪২ লক্ষ ১২ হাজার ৫শত ১৩ টাকা ব্যায়ে ৫ শত কেভিএ সাব স্টেশন নির্মাণ এবং ১ কোটি ৩০ লক্ষ ৯৬ হাজার ৬শত ১৫ টাকা ব্যায়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে পানির লাইন স্থাপনের কাজ করা হবে।

আগামী বছরের ১৭ ডিসেম্বর ১০তলা শিক্ষক-কর্মকর্তা ভবন প্রথম ফেজ ৫তলা পর্যন্ত এবং প্রভোস্ট হাউজ টিউটর কোয়াটার প্রথম ফেজ ৪তলা পর্যন্ত নির্মাণকাজ শেষ হবে। একই বছরের ১৭ সেপ্টেম্বর বাকি ৩টি নির্মাণ প্রকল্পের কাজ শেষ হবে।

স/মা

print
Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন