ঢাকাসোমবার , ৩১ জুলাই ২০২৩
  1. Bangla
  2. chomoknews
  3. English
  4. অপরাধ
  5. অভিনন্দন
  6. আমাদের তথ্য
  7. কবিতা
  8. কর্পরেট
  9. কাব্য বিলাস
  10. কৃষি সংবাদ
  11. খুলনা
  12. খোলামত
  13. গল্প
  14. গাইড
  15. গ্রামবাংলার খবর
আজকের সর্বশেষ

রিয়াদ ইস্যুতে চলছে ঠান্ডা লড়াই !

admin
জুলাই ৩১, ২০২৩ ৯:০০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

রিয়াদ ইস্যুতে চলছে ঠান্ডা লড়াই !

ক্রীড়া প্রতিবেদক ।। মিরপুর ক্রিকেট স্টেডিয়ামে চলছে ফিটনেস ক্যাম্প। টিম ম্যানেজমেন্টের লক্ষ্য দীর্ঘদিন মাঠের বাহিরে থাকা ক্রিকেটারদের অবস্থান যাচাই করা।

তারপরেই শুরু হবে এশিয়াকাপ ও বিশ্বকাপের প্রস্তুতি। ফিটনেস ক্যাম্পে থাকা ৩২ জনের তালিকা ছোট হয়ে আসবে। জাতীয় দলের প্রাথমিক তালিকাটি ২০-২২ জনে গিয়ে দাড়াবে, এমনটাই আভাস মিলছে টিম ম্যানেজমেন্টদের আলাপ আলোচনায়।

যাদের নিয়ে শুরু হবে আসন্ন এশিয়াকাপ ও বিশ্বকাপ প্রস্তুতি। এরপর নির্ধারণ করা হবে এশিয়াকাপের চূড়ান্ত দল। যে কারণে গতকাল মিরপুর ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সব কিছু ছাড়িয়ে আলোচনা চলে আসে ফিটনেস ক্যাম্পে সুযোগ পাওয়া মাহমুদ উল্লাহ রিয়াদকে ঘিরে।

তার জাতীয় দলে ফেরা নিয়ে জেগে উঠছে নতুন সংশয় আর শঙ্কা। তার একটাই কারণ, স্বয়ং কোচের পছন্দের তালিকাতেই নাকি নেই মাহমুদ উল্লাহ রিয়াদ! একটি সূত্রে জানা যায় স্কিল ক্যাম্পের জন্য কোচের দেওয়া ২০ জনের তালিকাতে নেই রিয়াদের নাম।

জাতীয় দল নির্বাচক প্যানেলের ভোটও পড়েনি মিডলঅর্ডার এ ব্যাটারের ব্যালটে।

বাংলাদেশ ক্রিকেটের নিরব সৈনিক রিয়াদের জাতীয় দলে ফেরার পক্ষে বিসিবি’র পরিচালকদের একাংশ। তারা কোচের এমন সিদ্ধান্তের বিপক্ষে দ্বিমত পোষণ করছেন। আর এখানেই ২০ জনের পুলের তালিকা গঠনে বড় জটিলতা তৈরি হয়েছে।

এছাড়া বাংলাদেশের ওয়ানডে দলে বেশিরভাগ জায়গা নিশ্চিত। ১১-১২ জনের নাম অনেকটা চূড়ান্ত। সংশয় আছে কেবল দুই-তিনটি জায়গা নিয়ে। যা নিয়ে জটিলতায় ভুগছে টিম ম্যানেজম্যান্টও। তবে আনফিট ও দুর্বল ফিল্ডারের জায়গা নেই হাথুরুসিংহের দলে।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হোম সিরিজ শেষে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন ও ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুসকে কোচ সাফ জানিয়ে দেন, এবার ফিল্ডিংয়ের ওপর জোর দেবেন তিনি। অর্থাৎ ফিল্ডিংয়ে তুখোড় ক্রিকেটারকে দলে চান হাথুরে।

যে কারণে ইংলিশদের বিপক্ষে কাঙিত মানের ফিল্ডিং না পাওয়ায় রিয়াদকে বাদ দেওয়া হয়। অবশ্য পরিচালকদের একটি বড় অংশ চান অভিজ্ঞ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপ দলের সাত নম্বর পজিশনের জন্য নেওয়া হোক।

এই জায়গায় রিয়াদের অভিজ্ঞতাকে গুরুত্ব দিচ্ছেন তারা। দলের প্রয়োজনীয় সময় তিনি মূখ্য ভূমিকা রেখেছেন একাধিকবার। তবে সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাসুদ পাইলট জানিয়েছেন, সাত নম্বর জায়গাটিতে কাকে নেয়া হবে সে সিদ্ধান্ত দলীয় অধিনায়কের পছন্দের উপর ছেড়ে দেয়া কথা।

তিনি আরো জানান, রিয়াদের আন্তর্জঅতিক অভিজ্ঞতার মূল্যায়ন করা উচিত। সে বিপদের সময় হাল ধরতে পারে। জাতীয় দলের অনেক জয়ের সঙ্গী রিয়াদ।

একজন পরিচালকের মতে, গত কয়েকটি সিরিজে সাত নম্বর জায়গায় যারা খেলেছে, তাদের চেয়ে সে ভালো করবে রিয়াদ। রিয়াদ টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নেন জিম্বাবুয়েতে। গত বছর টি২০ দল থেকে বাদ পড়ার পর ওয়ানডে ক্রিকেটের জন্যও বিবেচিত হচ্ছেন না।

যদিও মিডলঅর্ডার এ ব্যাটার শেষ ১০ ইনিংসে খুব একটা খারাপ করেননি, পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংস রয়েছে দুটি (অপরাজিত ৮০ ও ৭৭)। ত্রিশছোঁয়া ইনিংস তিনটি।

এরপরও কেন অভিজ্ঞ এ ক্রিকেটারের প্রতি টিম ম্যানেজমেন্টের অনীহা, জানতে চাওয়া হলে জাতীয় দল-সংশ্লিষ্ট একজন স্ট্রাইকরেট তুলে ধরেন। আসলে সাত নম্বর পজিশনে রিয়াদের স্ট্রাইকরেটের গড় ৭৭.২৯।

যেটা স্লগে ব্যাটিংয়ের দাবি মেটাতে ব্যর্থ বলে মনে করা হয়। জাতীয় দলের এক সাবেক ক্রিকেটারের মতে বর্তমান সময়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে প্রতি ওভারের গড় রান ৫.১৫।

সেখানে সাত নম্বরে নামা রিয়াদ গড়ে ৪.৬৫ রান করতে পেরেছেন। এতে করে ব্যাটিং পজিশন অনুযায়ী দলের চাহিদা পূরণ হচ্ছে না বলে দাবি তাঁর। তিনি বলেন, ‘এ পজিশনের ব্যাটারদের কাছ থেকে ক্যামিও ইনিংস আশা করা হয়। কম বলে বেশি রান চাওয়া থাকে। কোচের সে চাওয়া পূরণ করতে পারছেন না অন্যরাও। ’

জানা যায় ফিল্ডিং আর বোলিং বিবেচনায় সাত নম্বরে কোচের তালিকায় রয়েছেন আফিফ হোসেন, শেখ মেহেদী, শামীম হোসেন পাটোয়ারি ও সৌম্য সরকার। সৌম্য সম্প্রতি ইমার্জিং এশিয়া কাপে অলরাউন্ডার ভূমিকায় খারাপ করেননি। তবে বেশি ভালো ছিল মেহেদীর পারফরম্যান্স।

ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং তিন বিভাগেই দুর্দান্ত ছিলেন তিনি। এ ব্যাপারে নির্বাচকদের মতামত জানতে চাওয়া হলে একজন বলেন, ‘এই পজিশনের জন্য হাথুরুসিংহকে বলা হবে খেলোয়াড় বেছে নিতে।’

কতটা পরিপার্শ্বিক চাপ থাকলে নির্বাচকরাও এভাবে চিন্তা করতে পারেন। সব কিছু মিলে এশিয়াকাপ এবং বিশ্বকাপকে ঘিরে বিসিবিতে চলছে এক ধরণের ঠান্ডা লড়াই। সে লড়াইয়ে মাহমুদ উল্লাহ বলি হয়েও যেতে পারেন। হয়ত এখানেই তার আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিটাও টানতে হতে পারে তার।

স/এষ্