ঢাকাবুধবার , ১২ জুন ২০২৪
  1. Bangla
  2. chomoknews
  3. English
  4. অপরাধ
  5. অভিনন্দন
  6. আমাদের তথ্য
  7. কবিতা
  8. কর্পরেট
  9. কাব্য বিলাস
  10. কৃষি সংবাদ
  11. খুলনা
  12. খোলামত
  13. গল্প
  14. গাইড
  15. গ্রামবাংলার খবর
আজকের সর্বশেষ

জমতে শুরু করেছে রাজধানীর ডিয়াবাড়ি পশুর হাট

চমক নিউজ, ময়মানসিংহ
জুন ১২, ২০২৪ ২:২৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

জমতে শুরু করেছে রাজধানীর ডিয়াবাড়ি পশুর হাট

মোল্লা তানিয়া ইসলাম তমাঃ পবিত্র ঈদুল আজহার বাকি আর মাত্র কয়েকদিন । কুরবানির ঈদ উপলক্ষে রাজধানীর বৃহত্তম পশুর হাট উত্তরার দিয়াবাড়ী হাটে নির্ধারিত সময়ের আগেই ব্যবসায়ীরা পর্যাপ্ত পরিমাণে গরু, মহিষ, ছাগল, ভেড়া তোলা শুরু করেছেন ।

দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে প্রতিনিয়তই এই হাটে আসছে নানান প্রজাতির কুরবানির পশু । ব্যবসায়ীরা জানান, গত বছরের তুলনায় এবার গো-খাদ্যের মূল্য চড়া থাকায় খরচ বেড়েছে । তাই গ্রাহকদের একটু চড়ামূল্যে কুরবানির পশু কিনতে হবে ।

ইতিমধ্যে অনেক ক্রেতাই এই হাটে ভিড় করছেন, তারা পশু দেখছেন ও দাম যাচাই করছেন এবং কেউ কেউ আগাম কিনেও নিয়ে যাচ্ছেন । সার্বিকভাবে রাজধানীর কুরবানির পশুর হাট গুলো এখনও তেমন জমে ওঠেনি । পশু বেপারিরা বলছেন, ক্রেতার সমাগমও এখন কম । তবে ২/১ দিনের ভিতরেই ক্রেতাদের সমাগম ঘটবে এবং বেচা-বিক্রি বাড়বে ।

তবে ক্রেতারা বলছেন, গতবারের চেয়ে এবার পশুর দাম একটু বেশি চাচ্ছেন বেপারিরা । গো-খাদ্যের দাম বাড়ায় পশুর দাম এবার কিছুটা বাড়তি চাওয়া হচ্ছে বলে জানান বেপারিরা । মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, এ বছর কুরবানির জন্য এক কোটি ৩০ লাখেরও বেশি পশু প্রস্তুত রয়েছে । আর দেশে চাহিদা রয়েছে এক কোটি ১০ লাখের মতো ।

অর্থাৎ চাহিদার তুলনায় ২০ লাখ পশু বেশি আছে । মঙ্গলবার দুপুরে দিয়াবাড়ীর হাটে কথা হয় হালিম নামে এক গরু ব্যবসায়ীর সঙ্গে । তিনি কুষ্টিয়ার মিরপুরে নিজ মালিকানাধীন খামার থেকে ২৫টি গরু নিয়ে এসেছেন দিয়াবাড়ীতে । তিনি প্রতিবেদককে বলেন, গরুপ্রতি এবার খরচ পড়েছে অন্যান্য বছরের তুলনায় দেড়গুণ । খাদ্যের মূল্য চড়া ও খামারে কর্মচারীদের বেতন বৃদ্ধিসহ নানা কারণে খরচ বাড়ছে । হালিম প্রায় ১০ মণের একটি গরু দেখিয়ে বলেন, এখনও তো বিকিকিনি শুরু হয়নি ।

তবে গরুটির মূল্য ৬ লাখ টাকা দাম হাঁকাবেন বলে জানান । কিছু কম হলেও গরুটি ছেড়ে দেবেন বলে তিনি জানান । একই হাটে ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ড থেকে ৮টি মাঝারি সাইজের গরু নিয়ে এসেছেন ফজলুর রহমান । তিনি জানান, তার ভাই ও ভাতিজা মিলে ৮টি গরু তারা নিয়ে এসেছেন । গরুগুলো বাড়িতে স্ত্রী-সন্তানরা বড় করেছেন । তিনি ৭ মণের একটি গরুর মূল্য হাঁকিয়েছেন ৪ লাখ টাকা । তবে বিক্রি শুরু হলে সাড়ে ৩ লাখ টাকায়ও বিক্রি করে দিতে পারেন ।

ডিয়াবাড়ি পশুর হাটে আগত কয়েকজন বেপারীর কাছে জানতে চাওয়া হয় পথে কোনো ঝক্কি-ঝামেলা বা চাঁদা দিতে হয়েছে কি না- উত্তরে তারা বলেন, পথে কোনো চাঁদাবাজি ও হয়রানির ঘটনা ঘটেনি । সরেজমিনে দেখা গেছে, কুরবানির ঈদ উপলক্ষে দিয়াবাড়ী পশুর হাটের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়ে গেছে । এই হাটে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আনা হচ্ছে লাখ লাখ পশু । হাটের ইজারাদার আলহাজ মোঃ কফিল উদ্দিন লোক নিয়োগ করে হাটে তদারকি করাচ্ছেন । পুলিশ প্রশাসন এবং সিটি করপোরেশনও নিরাপত্তাসহ অন্যান্য আয়োজন সম্পন্ন করেছে ।