বাইরে ঝিরিঝিরি বৃষ্টি। এর মধ্যেই পুরান ঢাকার রাস্তায় রিকশা করে ঘুরে বেড়াচ্ছেন অভিনয় শিল্পী সজল ও পূর্ণিমা। ছাতা মাথায় দিয়ে রিকশায় করে কোথায় যাচ্ছেন এই দুজন? সজল জানালেন, গতকাল শুক্রবার থেকে তিনি ও পূর্ণিমা একটি নাটকের শুটিং শুরু করেছেন। ‘অন্ধজনে অন্ধক্ষণে’ নামের এই নাটকের শুটিং হচ্ছে পুরান ঢাকার ফরাশগঞ্জে। আজও শুটিং চলছে।

‘অন্ধজনে অন্ধক্ষণে’ নাটকের গল্প এক অন্ধ প্রেমিক জুটিকে নিয়ে। এই সমাজব্যবস্থা তাঁদের অন্ধ বানিয়েছে। মানুষের জীবনের কিছু কঠিন সময়ের সিদ্ধান্ত মানুষকে অনেকটা বিপথে ঠেলে দেয়। তেমনি এক ভুল সিদ্ধান্তের স্বীকার হন তাঁরা দুজন। যার মাশুল হিসেবে নাটকের নায়িকা পরীকে হারাতে হয় তাঁর দুই চোখ। অনেক আকুলতার ভিড়ে যখন নায়ক নাজমুল প্রেমিকা পরীকে আবারও ফিরে পেতে চান, তখন বাধা হয়ে দাঁড়ায় পরীর দৃষ্টিহীনতা। একটি ভুল সিদ্ধান্ত হয়ে দাঁড়ায় নাজমুলের জীবনের সবচেয়ে বড় কাল। এমনই এক গল্প নিয়ে ঈদের বিশেষ নাটক নির্মাণ করেছেন তরুণ নাট্যনির্মাতা রুমান রুনি। নাটকটি রচনা করেছেন ইউসুফ আলী খোকন। এই নাটকে নাজমুল চরিত্রে দেখা যাবে অভিনেতা আবদুন নূর সজলকে, আর পরী চরিত্রে দেখা যাবে জনপ্রিয় অভিনেত্রী পূর্ণিমাকে।

‘অন্ধজনে অন্ধক্ষণে’ নাটকে সজল ও পূর্ণিমা দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীর চরিত্রে অভিনয় করেছেনসজল বলেন, ‘পূর্ণিমার সঙ্গে এর আগেও কাজ করেছি। আবারও তাঁর সঙ্গে কাজ করতে পেরে খুব ভালো লাগছে। শুটিংয়ের সময় খুব মজা হয়। আমরা খুব আনন্দ করে এই নাটকের কাজ করছি।’

স/মা

print

Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন