জাবি প্রতিনিধি :

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী শিরিন আক্তার তিথি। হেমোফেগোসাইটিক লিমফোহিস্টিওসাইটোসিস  নামক বিরল রোগে আক্রান্ত।

তিথির চিকিৎসায় আর্থিক সহযোগিতা হিসেবে আজ ৭৫ হাজার টাকা প্রদান করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন কয়েকজন শিক্ষার্থী। তিথির চিকিৎসা সহায়তা প্রদানের জন্য এই অর্থ উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের নিকট জমা দেন। পরে উপাচার্য আজ তিথির বন্ধু ও সহপাঠিদের কাছে এই অর্থ হস্তান্তর করেন।

উপাচার্য অফিসে এ টাকা হস্তান্তরকালে অন্যান্যের মধ্যে প্রো-উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবুল হোসেন, প্রো-উপাচার্য অধ্যাপক ড. আমির হোসেন, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক শেখ মনজুরুল হক, জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আবদুল জব্বার হাওলাদার, নৃবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক ড. রঞ্জন সাহা পার্থ, তিথির সহপাঠি আদিল ইবনে সিফাত, তারেকুজ্জামান রাব্বি, বৈশাখী দাস, নাজনীন আক্তার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

টাকা হস্তান্তরকালে উপাচার্য তিথির চিকিৎসা সহায়তায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ  থেকে আর্থিক অনুদানের আশ্বাস দেন। এছাড়াও তিনি সমাজের বিত্তবান ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে তিথির চিকিৎসা সহায়তায় এগিয়ে আসার আহবান জানান।
তিথি কলকাতার টাটা মেডিক্যাল সেন্টারে চিকিৎসাধীন। তাঁর সহপাঠিগণ জানিয়েছেন, তিথির রোগটি পৃথিবীতে বিরল। প্রতি ১০ লক্ষ জনের মধ্যে ১জন এ রোগে আক্রান্ত হয়। তাঁরা আরও জানান, তিথির চিকিৎসায় ৭৫ লক্ষ টাকার প্রয়োজন। ইতোমধ্যে বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ১৫ লক্ষ টাকা সংগ্রহ করা হয়েছে। অগ্রণী ব্যাংক, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ০২০০০০৯৯৬৬২৪৮ নং একাউন্টে এবং রকেট একাউন্ট ০১৭৪৯২৭৭৫০১৭, বিকাশ একাউন্ট ০১৭৪০৯৩৮৭৭১, ০১৭৪৯২৭৭৫০১, ০১৭৬৬৯৪৩৯৫২, ০১৯৮৪৭৪০৮৮৫ নম্বরে আর্থিক অনুদান পাঠানো যাবে।

স/ম

print
Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন