রাজধানীতে রোববার দিবাগত রাত থেকে থেমে থেমে বৃষ্টি থাকলেও সোমবার (২৪ জুলাই) ভোর থেকে এ মাত্রা বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে বিভিন্ন সড়কে পানি জমে কমে যায় যানবাহনের গতি। কোথাও কোথাও সৃষ্টি হয়েছে যানজট।

আবহাওয়া অধিদফতর বলছে, আজ (সোমবার) এবং আগামীকাল (মঙ্গলবার) সারাদিন বৃষ্টি থাকবে। তবে পরশু (বুধবার) থেকে স্বাভাবিক হতে পারে।

সোমবার সকাল থেকে রাজধানীর কারওয়ানবাজার, মিরপুরের কাজীপাড়া, শেওড়াপাড়া, কালশী, ১৩ নম্বর, ভাষানটেক, উত্তরা, মানিক মিয়া অ্যাভিনিউ, মৌচাক, দক্ষিণ বনশ্রী, বনানী, রামপুরা, ধানমন্ডি, ফার্মগেট, তেজতুরীবাজার, তেজকুনিপাড়া, বসুন্ধরা শপিং কমপ্লেক্স (পান্থপথ) এলাকায় প্রবল বৃষ্টি হয়েছে।

বৃষ্টির কারণে রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে পানি জমে গেছে। কমে গেছে যানবাহনের গতি। ফলে কোথাও কোথাও যানজট সৃষ্টি হয়েছে। রাজধানীর মহাখালী জাহাঙ্গীরগেট, খিলক্ষেত, বনানী, আর্মি স্টেডিয়াম, কুড়িল বিশ্বরোড ও রামপুরা-বাড্ডা সড়কে যানজট দেখা গেছে।

বিমানবন্দর থেকে বনানী পর্যন্ত দু’পাশের সড়কেই দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়েছে।

রুশা খান নামের এক যাত্রী জানান, দুই ঘণ্টা আগে বাসে উঠেছি। এখনও মতিঝিল থেকে ধানমন্ডি যেতে পারিনি। মনে হচ্ছে আরও ঘণ্টাখানেক লাগবে।

এ বিষয়ে শাহবাগের ট্রাফিক বিভাগে দায়িত্বরত কনস্টেবল আলমগীর হোসেন জানান, বৃষ্টির কারণে অনেকেই বাইরে বের হননি। বৃষ্টি কমে যাওয়ার কারণে সব যানবাহন এবং যাত্রী একসঙ্গে মুভ (যাত্রা) করছে। তাই যানজট একটু বেশি।

এদিকে আবহাওয়া অধিদফতরের কন্ট্রোল রুম সূত্রে জানা গেছে, পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় লঘুচাপ ও মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে এ বৃষ্টিপাত হচ্ছে। রোববার রাত থেকে সোমবার দুপুর পর্যন্ত রাজধানীতে ২৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আরও বলা হচ্ছে, মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে রাজশাহী, রংপুর, ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় অস্থায়ী ও দমকা থেকে ঝড়োহাওয়া বয়ে যেতে পারে। সেই সঙ্গে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি অথবা বর্জসহ বৃষ্টিপাত হতে পারে।

স/নিপা

print

Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন