গত এক দশক ধরে শীর্ষে আছেন শাকিব খান। নিজের আলাদা দর্শক শ্রেণীও সৃষ্টি করেছেন এর মধ্যে। তবে তাকে নিয়ে আলোচনা প্রশংসা সমালোচনার পাহাড় দাড়িয়ে যায় গত বছর যৌথ প্রযোজনায় শিকারি ছবি করার পর থেকে। তিনি জানিয়ে দেন তিনি কি করতে পারেন। যার কারণে তার দর্শক শ্রেণীর তালিকা আরও লম্বা হয়। তার খ্যাতির এই নব নির্মাণে তারে কিছুটা অহংকার বৃদ্ধি পাওয়াটা স্বাভাবিক। সম্প্রতি এক দৈনিকের দেয়া সাক্ষাৎকারে তারই প্রমাণ পাওয়া গেল। অবশ্য যার মাশুলও তাকে এবার গুনতে হবে।

শাকিব এক সাক্ষাৎকারে বলেন— ‘এখন যেহেতু বেশি সিনেমা হচ্ছে না, তাই বেকার লোকের সংখ্যাও বেশি। পরিচালক সমিতির তালিকা দেখবেন, অনেক পরিচালক। তারা এফডিসিতে আড্ডাও মারছেন। কিন্তু কাজ করছেন কতজন? প্রযোজকের ক্ষেত্রেও দেখবেন একই অবস্থা। শিল্পীদের ক্ষেত্রেও তাই। অনেক শিল্পী তো নিবন্ধিত আছেন, কাজ করছেন কতজন? আমার মনে হয় এই দেশে এক নম্বর হওয়াটা একটা যন্ত্রণার ব্যাপার। একদিন বা দুই দিনের জন্য হলে ঠিক আছে, কিন্তু দীর্ঘদিন প্রথম স্থান ধরে রাখলে তখন শত্রুর অভাব হয় না। ব্যাপার না, আমার নামে নাম-বদনাম দুই-ই চলতে হবে। ’

পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকন বলেন, এই কথা গুলোর মাধ্যমে শাকিব খান চলচ্চিত্র পরিচালক, প্রযোজক আর শিল্পীদের হেয় করেছেন। তাই নায়ক শাকিব খানকে উকিল নোটিশ পাঠিয়েছে চলচ্চিত্র সমিতি।

মহাসচিব খোকন ক্ষোভ জানিয়ে বলেন, প্রযোজক-পরিচালকদের কারণে আজ শাকিব খান তারকা হয়েছেন। তার রুটি-রুজির ব্যবস্থা হয়েছে। আর আজ শাকিব প্রযোজক পরিচালক আর শিল্পীদের হেয় করে কথা বলে চরম অন্যায় করেছেন। উকিল নোটিশের সন্তোষজনক জবাব দিতে না পারলে তার বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করা হবে।

print
Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন