রাজধানীতে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ হেফাজতে থাকা অবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শামীম রেজা রুবেল হত্যা মামলায় তৎকালীন ডিবির সহকারী কমিশনার (এসি) মো. আকরাম হোসেনকে খালাসের রায় বহাল রেখেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। মামলার অপর আসামি উপপরিদর্শক (এসআই) হায়াতুল ইসলাম ঠাকুরের বিরুদ্ধে হাইকোর্টের দেয়া যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশও বহাল রেখেছেন আদালত।

মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এসকে) সিনহার নেতৃত্বে আপিল বিভাগের বেঞ্চ এ রায় দেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মোমতাজউদ্দিন ফকির। এসি আকরামের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এস এম শাহজাহান ও হায়াতুল ঠাকুরের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মনসুরুল হক চৌধুরী।

পরে আইনজীবী এস এম শাহজাহান সাংবাদিকদের বলেন, রাষ্ট্রপক্ষের আপিল খারিজ করে এসি আকরামকে হাইকোর্টের দেওয়া খালাসের রায় বহাল রেখেছেন। হায়াতুল ঠাকুরের আপিলও খারিজ করে দিয়েছেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, রাজধানীর ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটির ছাত্র রুবেলকে  ১৯৯৮ সালের ২৩ জুলাই ডিবির এসআই হায়াতুল ইসলাম ঠাকুরের নেতৃত্বে একটি দল আটক করে। পরে ডিবি পুলিশ হেফাজতে থাকা অবস্থায় রুবেলের মৃত্যু হয়।

পরে রুবেলের মৃত্যুর ঘটনার মামলার রায়ে বিচারিক আদালত ২০০২ সালের ১৭ জুন এসি আকরামসহ ১৩ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন এবং মুকুলি বেগম নামে এক আসামিকে এক বছরের কারাদণ্ড দেন।

ওই রায়ের বিরুদ্ধে একই বছর হাইকোর্টে আপিল করে আসামি পক্ষ। আপিলের শুনানি শেষে হাইকোর্টের রায়ে এসি আকরাম, মুকুলি বেগমসহ ১৩ আসামিকে খালাস দিয়ে হায়াতুল ইসলামের সাজা বহাল রাখা হয়।

হাইকোর্টের রায়ের পর ২০১১ সালের ৯ মে কারাগার থেকে মুক্তি পান এসি আকরাম।  এরপর রাষ্ট্রপক্ষ এসি আকরামের খালাসের বিরুদ্ধে এবং হায়াতুল ঠাকুর তার যাবজ্জীবন দণ্ডের বিরুদ্ধে আপিল করে।

স.নিপা
print
Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন