মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি:

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় মুক্তিযুদ্ধে খেতাবপ্রাপ্ত বীর প্রতীক রফিকুল ইসলাম কমান্ডার (৬৫)-কে হত্যা প্রচেষ্ঠা মামলার ৬ আসামিকে জেল গেটে ২দিনের জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দিয়েছেন আদালত। সোমবার দুপুরে মুন্সীগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট উমা রানি দাস এ আদেশ প্রদান করেন। গজারিয়া থানার পুলিশ ৬ আসামির ৫ দিনের রিমান্ড চায়। রিমান্ড শুনানী শেষে আদালত আসামিদের মুন্সীগঞ্জ জেলগেটে পুলিশকে ২দিনের জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ প্রদান করেন। আসামিরা হলেন, মামলার প্রধান আসামী জিএম শহীদুল্লাহ, শান্ত মিয়া, জিএম মোস্তফা, সেতু মিয়া, সজীব সরকার ও রেদোয়ান আহমেদ।
এদিকে, সন্ত্রাসী হামলায় পঙ্গু হয়ে যাওয়া মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, বীরপ্রতিক সাড়ে তিনমাস ধরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।
পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, মাদক ব্যবসায় বাঁধা দেয়ায় গত বছরের ২৮ শে নভেম্বর রাত ৭টার দিকে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার টেঙ্গারচর ইউনিয়নের ভাটেরচর গ্রামে জিএম শহীদুল্লাহর নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার রফিকুল ইসলাম বীর প্রতীকের উপর সশস্ত্র হামলা চালায়। তার হা-পা ও তলপেটে উপযুপরি ছুরিকাঘাত ও রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। রফিকুল ইসলামকে প্রথমের গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয় এবং একই দিন উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনি বর্তমানে পঙ্গু হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এ ঘটনায় পরদিন ২৯ শে নভেম্বর ভুক্তভোগী রফিকুল ইসলামের ছেলে রবিউল ইসলাম বাদী হয়ে জিএম শহীদুল্লাহকে প্রধান আসামি করে ১৪ জনের বিরুদ্ধে গজারিয়া থানায় মামলা করেন।

স/জনী

print
Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন