রেডিও ইয়োথ নামের ভুয়া মিডিয়া হাতিয়ে নিচ্ছে টাকা

নিজস্ব প্রতিনিধি: নাম সর্বস্ব অনলাইন রেডিও ইয়োথ। তরুণদের রেডিও জকি বা আরজে তৈরি করার নাম করে হাতিয়ে নিচ্ছে টাকা। যদিও নামে রেডিও হলেও নেই কোন প্রকারের অনুমতি। ডিএফপির ছাড়পত্র তো দূরের কথা খোঁজ মেলেনি কোন ট্রের্ড লাইসেন্সও।

ছাড়পত্র বা অনুমতি না নিয়ে তরুণদের কাছ থেকে বিভিন্ন প্রশিক্ষণের নাম করে ইতোমধ্যে রেডিও এর চেয়ারম্যান তানভির আহম্নেদ অনেকের কাছ থেকে মোট অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

অনুসন্ধানে দেখা যায়, এই রেডিও নেই কোনো স্টুডিও বা সম্প্রচার কেন্দ্র। সঠিক কোন ঠিকানা ও তারা ব্যবহার করে না। শুধুমাত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি পেইজ তৈরি করে, চিত্ত আকর্ষণ বিজ্ঞাপন দিয়ে আরজে বা কথা বন্ধু কোর্সের নামে হাতিয়ে নিচ্ছে টাকা।

Radio Youth Media Academy (RYMA) নামে তৈরি করেছে একটি পেইজ এবং একি নামে একটি গ্রুপ ও রয়েছে। যার মাধ্যমে তারা চালাচ্ছে এসব প্রতারণার ব্যবসা।

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ আছে টাকা নেয়ার পর কোনো যোগাযোগই করে না গ্রুপের কথিত চেয়ারম্যান তানভির আহম্নেদ।

ভুক্তভোগী আসাদুল এন আবরার জানান, বর্তমান যুগের আকর্ষণীয় পেশার নাম রেডিও আরজে। নিজের সেই স্বপ্ন পূরণের জন্য রেডিও ইয়োথ এর আরজে কোর্স বিজ্ঞাপনের ভর্তি হয়েও মেলেনি কোন প্রশিক্ষণ। কয়েক মাস অপেক্ষা করার পরে তানভির আহম্নেদ এর কাছে কোর্স ফি ফেরত চাইলে তিনি বিভিন্ন ভাবে ছলচাতুরি শুরু করে। এক-পর্যায়ে তিনি যোগাযোগ বন্ধ করতে তার সব সিম (মোট ছয়টি) বন্ধ করে দেন। তানভির আহম্নেদ এর নামে এর আগেও অনেকের কাছ থেকে বিভিন্ন উপায়ে টাকা হাতিয়ে নেবার অভিযোগ রয়েছে।

এ-ব্যাপারে ডিএফপি এর সহককারি পরিচালক সালে আহম্মেদ জানান, খুব দ্রুত এসব নাম সর্বস্ব রেডিও বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হবে।

স/এষ্

Print Friendly, PDF & Email