আবু নাসের হুসাইন, সালথা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি:
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ফরিদপুর-২, (সালথা-নগরকান্দা ও কৃষ্ণপুর) আসনে সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর পক্ষে মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন তার কনিষ্টপুত্র ও রাজনৈতিক প্রতিনিধি শাহদাব আকবার চৌধুরী লাবু। আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সাজেদা চৌধুরীর হাতকে শক্তিশালী করতে দুই উপজেলার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে লাবু চৌধুরী নির্বাচনী প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছেন।

জানা যায়, উপজেলা উপ-মহাদেশের বর্ষিয়াণ রাজনীতিবিদ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দু:হসময়ের কান্ডারী, প্রেসিডিয়ামের সিনিয়র সদস্য, জাতীয় সংসদের মাননীয় সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী এমপি ১৯৯১ ইং সালে বনমন্ত্রী থাকা অবস্থায় ফরিদপুর-২, সালথা-নগরকান্দা আসনে ব্যাপক উন্নয়নের কাজ শুরু করেন। সাজেদা চৌধুরীর প্রচেষ্টায় সালথা-নগরকান্দা আজ রোল মডেল হিসাবে পরিচিত। এমন কোন গ্রাম নাই যেখানে সাজেদা চৌধুরীর ছোঁয়া লাগে নাই। এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আবারও সাজেদা চৌধুরীকে এমপি হিসাবে দেখতে চায় এলাকাবাসী।

সালথা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠণিক সম্পাদক চৌধুরী সাব্বিার আলী বলেন, ফরিদপুর-২ আসনে সাজেদা চৌধুরী ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। সেই সুবাধে সাজেদা চৌধুরীর কনিষ্টপুত্র ও তার রাজনৈতিক প্রতিনিধি বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ শাহদাব আকবার লাবু চৌধুরী সকল নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে দিন-রাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। সাজেদা চৌধুরীর পক্ষে সালথা-নগরকান্দা ও কৃষ্ণপুরের প্রতিটি এলাকায় সভা ও সমাবেশ করছেন তিনি। আর লাবু চৌধুরীর নেতৃত্বে সালথা-নগরকান্দা আওয়ামী লীগ আজ সুসংগঠিত হয়েছে। আগামী সংসদ নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে সাজেদা চৌধুরীকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করবো ইনশাল্লাহ।
সালথা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেলোয়ার হোসেন বলেন, এক সময়ে সালথা-নগরকান্দায় কোন রাস্তা-ঘাট,ব্রীজ-কালভার্ট ও স্কুল ভবন তেমন ছিলো না। সাজেদা চৌধুরীর জন্য আজ সালথা-নগরকান্দায় প্রতিটি গ্রামগঞ্জে রাস্তা-ঘাট, ব্রীজ-কালভার্ট ও ভবন নির্মাণ হয়েছে। এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আমরা সাজেদা চৌধুরীকে আবার এমপি এবং লাবু চৌধুরীকে তাঁর রাজনৈতিক প্রতিনিধি হিসাবে দেখতে চাই।

নগরকান্দা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি দেলোয়ার ফকির বলেন, সালথা-নগরকান্দার মাটি সাজেদা চৌধুরীর ঘাটি। এখানে সাজেদা চৌধুরীর কোন বিকল্প নেই। আমাদের প্রানপ্রিয় নেত্রীর সুযোগ্য সন্তান শাহদাব আকবার লাবু চৌধুরীর নেতৃত্বে দুই উপজেলার আওয়ামী লীগ আজ শক্তিশালী। আমরা আগামী সংসদ নির্বাচনে সাজেদা চৌধুরীকে পূর্ণরায় এমপি হিসাবে দেখতে চাই।

জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মনিরুজ্জামান সর্দার বলেন, সালথা-নগরকান্দার উন্নয়নের রোল মডেল সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীকে আবারও এমপি হিসাবে দেখতে চাই। মাঝে রাজনৈতিক নেতৃত্বের কারণে দলের মধ্যে কিছুটা কোন্দল ছিলো। সাজেদা আপার সুযোগ্যপুত্র শাহদাব আকবার লাবু চৌধুরী মাঠে আসার জন্য সকল কোন্দল নিরসন প্রায়। দু-একজন যারা ভূল বুঝে দূরে আছে, তারা খুব শীগ্রই ঠিক হয়ে যাবে। মাঠ এখন সাজেদা চৌধুরী ও লাবু চৌধুরীর দখলে।
সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর কনিষ্টপুত্র ও তার রাজনৈতিক প্রতিনিধি শাহদাব আকবার চৌধুরী লাবু এ প্রতিনিধিকে বলেন, আমার মা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী সালথা-নগরকান্দায় ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। আওয়ামী লীগ ও এলাকাবাসীর জন্য উনার সারাটা জীবন ব্যায় করেছেন। সেজন্য আমি আমার মায়ের পক্ষ থেকে সালথা-নগরকান্দায় নির্বাচনী প্রচারনা চালাচ্ছি। আগামী সংসদ নির্বাচনে ফরিদপুর-২, আসনের জনগণ আমার মা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

স/এষ্

print

Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন