আবু নাসের হুসাইন, সালথা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি:

ফরিদপুরের সালথায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে সাখাওয়াত হোসেন ওরফে সাকা মাতুব্বর নিহতের ঘটনায় আটঘর ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৫২ জনের বিরুদ্ধে সালথা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে। এ ঘটনায় ৩জন আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ সুত্রে জানা যায়, নিহতের মেজ ছেলে লাভলু মাতুব্বার বাদী হয়ে আটঘর ইউপি চেয়ারম্যান শহীদুল হাসান খান সোহাগকে প্রধান আসামী করে ৫২ জনের বিরুদ্ধে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার সকাল সাড়ে ১১ টায় মামলাটি রুজু করা হয়। যাহার মামলা নং-০১, তাং-০৫/০৯/২০১৮ইং।

মামলার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) আতিয়ার রহমান বলেন, মামলার এজাহারভূক্ত ৩জন আসামীকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

সালথা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, সংঘর্ষে সাখাওয়াত নিহতের বিষয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা রুজু করা হয়েছে। ইতিমধ্যে ৩ আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

উল্লেখ্য, সোমবার (৩ সেপ্টম্বর) সন্ধ্যায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে উপজেলার আটঘর ইউনিয়নের খোয়ার-গোয়ালপাড়া ও গট্টি ইউনিয়নের ভাবুকদিয়া গ্রামবাসীর সংঘর্ষে সাখাওয়াত হোসেন ওরফে সাকা মাতুব্বার নিহত হয়। নিহত সাকা খোয়ার গ্রামের মৃত খালেক মাতুব্বরের ছেলে। এ ঘটনায় অন্তত ১৫ ব্যাক্তি আহত হয়। আহতদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

স/এস্

print
Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন