সালথা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি:
ফরিদপুরের সালথায় অনৈতিক সম্পর্কের কারণে দুই স্কুল শিক্ষার্থীকে সাময়িকভাবে বহিস্কার করেছে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বহিস্কৃত দুই শিক্ষার্থী উপজেলার বড়খারদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্র ও অষ্টম শ্রেনীর ছাত্রী। রবিবার সকাল ১১ টায় এই বহিস্কারের ঘটনা ঘটে।
স্থানীয়রা জানান, শনিবার রাতে খারদিয়া গ্রামের কাজী পাড়া এলাকায় খারদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীর এক শিক্ষার্থীর বাড়িতে অনৈতিক সম্পর্কের সময় এলাকাবাসীর কাছে ঘরে মধ্যে আটকা পড়ে একই বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্র ও খারদিয়া মীরেপাড়া এলাকার কামরুল মিরের ছেলে বাধন মীর (১৬)। এসময় এলাকাবাসী দুই শিক্ষার্থীকে ঘরের মধ্যে দেখতে পেয়ে আটকিয়ে রাখে। সকালে বাধনের ফুফা ইবাদত মীর সুকৌশলে তাকে ছাড়িয়ে আনে। এখবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ উভয় শিক্ষার্থীকে বিদ্যালয় থেকে সাময়িকভাবে বহিস্কার করেন। বাধনের বাবা কামরুল মীর সাংবাদিকদের বলেন, কি কারণে আমার ছেলেকে আটকিয়ে রেখেছিলো, তা আমি জানিনা।
খারদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক প্রদ্যুৎ কুমার বিশ্বাস বলেন, অনৈতিক সম্পর্কে জড়িয়ে পরার খবর পেয়ে আমরা বিদ্যালয় থেকে দুই শিক্ষার্থীকে সাময়িকভাবে বহিস্কার করেছি। যাতে আমাদের বিদ্যালয়ের পরিবেশ সুন্দর থাকে।
ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আবুল খায়ের বলেন, বিদ্যালয়ের কোন শিক্ষার্থী ভবিষ্যতে অনৈতিক সম্পর্কে যাতে জড়িয়ে না পড়ে, সেজন্য বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ উক্ত দুই শিক্ষার্থীকে সাময়িকভাবে বহিস্কার করেছে। আগামী বুধবার বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের জরুরী সভায় এর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরআর

print

Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন