এম.এম.রহমান,মুন্সীগঞ্জ : মুন্সীগঞ্জে কথিত বন্দুক যুদ্ধে লেখক প্রকাশ শাহজাহান বাচ্চু হত্যার প্রধান আসামী আব্দুর রহমান (৩২) নিহত হয়েছে। জেলার সিরাজদিখান উপজেলার বালুরচরের কালিনগর এলাকায় বুধবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তার বাড়ি পঞ্চগড়ের দেবিগঞ্জ উপজেলার কালিগঞ্জ গ্রামে। তার বাবার নাম হোসেন শেখ।
বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টার দিকে মুন্সীগঞ্জ পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের কনফারেন্স রুমে প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম জানান,মুন্সীগঞ্জ জেলা পুলিশের একটি এন্টি টেররিজম ইউনিট, পুলিশ হেডকোয়াটার্স ইন্টিলিজেন্স উইং, বগুড়া জেলা পুলিশ এবং গাজীপুর জেলা পুলিশের সহযোগিতায় গাজীপুর থানাধীন কেওয়া পশ্চিমখন্ড গ্রামের আলহেরা হাসপাতালের পেছনের একটি দু’তলা বাড়ীতে অভিযান চালিয়ে আব্দুর রহমান @ লালু @ সাঈদ@ আক্কাস@ কাওসার (৩৪) কে আটক করে। তার দেয়া তথ্যমতে তার ঘরের আলমারি থেকে ২টি পিস্তল, ২১ রাউন্ডগুলি এবং ৪ টি তাজা গ্রেনেড উদ্ধার করা হয় । প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে লেখক প্রকাশ শাহজাহান বাচ্চু হত্যার সাথে জড়িত বলে জানায়। আব্দুর রহমান ঢাকা বিভাগের নিষিদ্ধ ঘোষিত জেএসবির সামরিক কমান্ডারের দায়িত্বশীল বলেও স্বীকার করেন।

পরে আব্দুর রহমানকে গাজীপুর থেকে আনা হয় সিরাজদিখানে। বুধবার দিবাগত রাতে তাকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারে মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার বালুরচরের কালিনগর এলাকায় পৌছালে তার সহযোগিরা পুলিশকে লক্ষ করে গুলি চালায় । এতে পুলিশের ৩ জন সদস্য আহত হন। আতœরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এ সময় দৌড়ে পালানোর সময় আব্দুর রহমান গুলিবিদ্ধ হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে সিরাজদিখান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। ঘটনাস্থলে হতে পুলিশ ১টি পিস্তল, ২টি ম্যাগজিন, ৯রাউন্ড গুলি এবং লাল রঙের একটি পালসার মোটর সাইকেল জব্দ করে। ধারনা করা হচ্ছে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ২টি মোটর সাইকেলের মধ্যে এটি একটা ।

পুলিশ সুপার আরো জানান, আব্দুর রহমান সিরাজদিখান উপজেলার বালুরচর এলাকায় একটি টিনসেট ঘর ভাড়া হত্যাকান্ডের পরিকল্পনা করে। ৩ মাস আগে গাড়ীর চালক পরিচয় দিয়ে বাসা ভাড়া নিয়ে শাহজাহান বাচ্চুকে অনুসরন করে। এই শাহজাহান বাচ্চু হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত বাকীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি।
উল্লেখ্য, লেখক প্রকাশ শাহজাহান বাচ্চুকে ১১ জুন সন্ধ্যায় সিরাজদিখানের কাকালদি এলাকায় ২টি মোটর সাইকেলে আসা ৪জন ব্যক্তি গুলি করে বোমা ফাঁটিয়ে পালিয়ে যায় । ঘটনার প্রায় ১৫ দিনের মাথায় পুলিশ শাহজাহান বাচ্চু হত্যাকান্ডের পরিকল্পনাকারীদের চিহ্নিত করতে সক্ষম হন।
শাজাহান বাচ্চু উপজেলার মধ্যপাড়া ইউনিয়নের পশ্চিম কাকালদি গ্রামের মরহুম মমতাজ উদ্দিনের ছেলে। সে জেলা কমিনিস্ট পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এছাড়া সাংবাদিক, কবি, প্রকাশক ও ব্লগার ছিলেন। ঢাকার বাংলাবাজারে বিশাকা প্রকাশনীর সত্বাধিকারী ও সাপ্তাহিক আমাদের বিক্রমপুর পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ছিলেন।

স/রহ

print
Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন