দুইদিন পর পর্দা উঠবে রাশিয়া বিশ্বকাপের। বিশ্বকাপকে সামনে রেখে সারাবিশ্বে চলছে শেষ মুহূর্তের গোছগাছ সাড়ার পালা। বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী সবদলও পৌঁছতে শুরু করেছে রাশিয়ায়। চারদিকে চলছে নানান আলোচনা, সম্ভাবনা এবং ভবিষ্যৎবাণীর পসরা।

বিশ্বকাপে খেলার মাঠে সাফল্য ব্যর্থতার বাইরেও বড় একটি প্রভাব ফেলে নানান কুসংস্কার এবং অন্ধবিশ্বাস। এসব বিশ্বাসের বলেই অনেকে এগিয়ে যায় নিজ নিজ গন্তব্যের প্রতি। তারই ধারাবাহিকতায় নতুন সময়ের এই আয়োজনে থাকছে ইংরেজি ২৬টি বর্ণ নিয়ে আয়োজন ‘বর্ণতত্ত্বে বিশ্বকাপ’। চলুন দেখে নেয়া যাক ২৬টি বর্ণের বিশেষত্ব:

এ (A)- একিলিস (Achlies) – এবারের বিশ্বকাপে ভবিষ্যতবাণী করবে ‘একিলিস’ নামক বিড়াল। এর আগের বিশ্বকাপে এই কাজটি করতো ‘পল’ নামক অক্টোপাস।

বি (B) – ব্রাজিল (Brazil) – বিশ্বকাপের ইতিহাসের সবচেয়ে সফল দল ব্রাজিল। ইতিহাসের সর্বোচ্চ পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন তারা।

সি (C) – ক্লিচেস (Cliches) – ক্লিচেস বা প্রবাদ! বিশ্বকাপের পুরো আসরজুড়েই শোনা যাবে ‘ফর্ম আসবে যাবে, ক্লাস থেকে যাবে’, ‘পেনাল্টি মানেই লটারি’, ‘দুই অর্ধের খেলা’ এমন সব প্রবাদ বা বাগধারা।

ডি (D) – ডার্ক হর্স (Dark Horse) – তুলনামূলক কম শক্তিশালী দল হয়েও বাজিমাত করার সামর্থ্য থাকা দলগুলো। এবারের বিশ্বকাপের এমন ডার্ক হর্স হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বেলজিয়াম, পর্তুগাল এবং উরুগুয়ের।

ই (E) – এসাম এল হাদারি (Essam El Hadary) – মিশরের এই গোলরক্ষকের বয়স ৪৫ বছর ৪ মাস। রাশিয়া বিশ্বকাপে মাঠে নামার সুযোগ পেলে বিশ্বকাপ খেলা সবচেয়ে বয়স্ক খেলোয়াড়ের তালিকায় এক নম্বরে উঠে যাবেন তিনি।

এফ (F) – ফেভারিট (Favorite) – এবারের বিশ্বকাপের ফেভারিট দলের তালিকায় রয়েছে ব্রাজিল, স্পেন, ফ্রান্স এবং জার্মানির নাম।

জি (G) – গোল্ডেন বুট এবং বল (Golden Boot and Ball)- বিশ্বকাপের এক আসরে সর্বোচ্চ গোলদাতাকে গোল্ডেন বুট এবং বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড়কে গোল্ডেন বল পুরস্কার দেয়া হয়।

এইচ (H) – হ্যাশট্যাগ (Hashtag) – বিশ্বকাপ চলাকালীন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোয় বিশ্বকাপের উন্মাদনা আরও বাড়াবে নানান হ্যাশট্যাগ।

আই (I) – আইসল্যান্ড (Iceland) – জনসংখ্যার দিক দিয়ে বিশ্বকাপে অংশ সবচেয়ে ক্ষুদ্রতম দেশ আইসল্যান্ড। তাদের মোট জনসংখ্যা মাত্র ৩,৩৪,০০০।

জে (J) – জোয়াকিম লো (Joachim Low) – জার্মানির কোচ জোয়াকিম লো’র সামনে প্রথমবারের মতো কোচ হিসেবে টানা দুইটি বিশ্বকাপ জয়ের হাতছানি। ২০১৪ সালের বিশ্বকাপে তার অধীনের বিশ্বকাপ জিতেছিল জার্মানি।

কে (K) – কালিনিচ (Kalinic) – ক্রোয়েশিয়ান গোলরক্ষক লভরে কালিনিচ এবারের বিশ্বকাপের সবচেয়ে লম্বা খেলোয়াড়। তার উচ্চতা ৬ ফুট ৫ ইঞ্চি।

এল (L) – লিভ ইট আপ (Live It Up) – এবারের বিশ্বকাপের থিম সংয়ের নাম লিভ ইট আপ।

এম (M) – মেসি (Messi) – ফুটবল ইতিহাসের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় লিওনেল মেসি। গত বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার খুব কাছে গিয়েও শিরোপা বঞ্চিত হয়েছিলেন তিনি। এবারের আসরে নতুন করে শিরোপা মিশনে নামবেন তার দল আর্জেন্টিনাকে নিয়ে।

এন (N) – নাটমেগ (Nutmeg) – ফুটবলের অন্যতম দর্শনীয় একটি স্কিল নাটমেগ। প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়ের দুই পায়ের ফাঁক দিয়ে বল পাস দেয়া বা ড্রিবল করার নামই নাটমেগ।

ও (O) – অরেঞ্জ (Orange) – দুর্ভাগ্যবশত এবারের বিশ্বকাপে খেলতে পারছে না নেদারল্যান্ড। যার ফলে নিশ্চিতভাবেই গ্যালারিতে অনুপস্থিত থাকবে নেদারল্যান্ডের কমলা রঙের ঝড়।

পি (P) – পানেনকা (Panenka) – পেনাল্টি শট নেয়ার একটি বিশেষায়িত কৌশল পানেনকা শট। গোলকিপারকে বোকা বানিয়ে একদম সোজা গোলকিপার বরাবরই বল জালে প্রবেশ করানো হলে সেটি পানেনকা হিসেবে আখ্যায়িত হয়।

কিউ (Q) – কাতার (Qatar) – আগামী বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ কাতার।

আর (R) – রাভশান ইরমাতভ (Ravshan Irmatov) – উজবেকিস্তানের রেফারি রাভশান ইরমাতভের দখলে রয়েছে বিশ্বকাপের ইতিহাসের সর্বোচ্চ ৯টি ম্যাচ পরিচালনা করার রেকর্ড।

এস (S) – সালাহ (Salah) – এবারের বিশ্বকাপে নায়ক হওয়ার সুযোগ রয়েছে মিশরীয় ফুটবলার মোহামেদ সালাহর সামনে। এরই মধ্যে দীর্ঘ ২৮ বছর পর মিশরকে বিশ্বকাপে এনে মিশরের রাজা উপাধি পেয়েছেন তিনি।

টি (T) – টেলস্টার (Telstar) – এবারের বিশ্বকাপের বলের আনুষ্ঠানিক নাম টেলস্টার ১৮।

ইউ (U) – আনকোয়ালিফাইড একাদশ (Unqualified XI) – বুফন, লুইজ, সানে, সানচেজ, কিয়েল্লিনি, রোবেন, বেল, ভ্যান জিক, আলাবা, মার্শিয়াল এবং ইকার্দিকে নিয়ে গড়া এবারের বিশ্বকাপে সুযোগ না পাওয়া একাদশ।

ভি (V) – ভার (VAR) – ভার বা ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি। এবারের বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো মাঠের রেফারিদের সাহায্য করবে ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি। খেলার মধ্যে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে সমস্যা হলে ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির দ্বারস্থ হবেন মাঠের রেফারি।

ডব্লিউ (W) – ওয়াইভস (Wives) – বিশ্বকাপে অংশ নেয়া খেলোয়াড়দের সুন্দরী প্রিয়তমরা, যারা কিনা আগামী এক মাস খবরের কাগজের ওপরের দিকেই থাকবেন।

এক্স (X) – জারদান শাকিরি (Xherdan Shaqiri) – মাত্র ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি উচ্চতা নিয়ে এবারের বিশ্বকাপের সবচেয়ে খাটো খেলোয়াড় সুইজারল্যান্ডের জারদান শাকিরি।

ওয়াই (Y) – বয়সে সবচেয়ে ছোট দল (Youngest Team) – গড় বয়সের ভিত্তিতে এবারের বিশ্বকাপের সবচেয়ে ছোট দল স্বাগতিক দেশ রাশিয়া।

জেড (Z) – জাবিভাকা (Zabivaka) – এবারের বিশ্বকাপের মাসকটের নাম জাবিভাকা। যা একটি নেকড়েকে উপস্থাপন করে। রাশিয়ান মতবাদ অনুসারে এই নেকড়ে গোল করতে পারে।

স/এষ্

print
Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন