মাহাবুব ইসলাম উজ্জ্বল, মাগুরা প্রতিনিধি :

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সাহায্যের নাম করে মাগুরায় সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচির প্রায় ৩৭ লাখ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠেছে মহম্মদপুরের নাগড়া কৃষি ব্যাংক কর্মকর্তা কর্মচারীদের বিরুদ্ধে।
মাগুরার মহম্মদপুর উপজেরার দীঘা ইউনিয়নের নাগড়া বাজারের একমাত্র ব্যাংকটি হচ্ছে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক। যেখানে দীঘা ও পার্শবর্তী বাবুখালী ইউনিয়নের অনন্ত ২ হাজার ৩’শ অসহায় বয়ষ্ক, বিধবা ও প্রতিবন্ধী মানুষের হিসাব খোলা রয়েছে। যাদের হিসাবের বিপরীতে সমাজকল্যান মন্ত্রনালয়ের অধীন সমাজসেবা অধিদপ্তর থেকে জন প্রতি ৫’শ টাকা থেকে ৭’শ টাকা মাসোয়ারা দেয়া হয়। প্রতি তিন মাস অন্তর বয়ষ্ক ও বিধবা মহিলাদের ১ হাজার ৫’শ টাকা এবং অসহায় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা ২ হাজার ১’শ টাকা হারে উত্তোলনের সুযোগ পেয়ে থাকেন। কিন্তু নানা ছলচাতুরীর মাধ্যমে এই দুটি ইউনিয়নের নিবন্ধিত অসহায় বযষ্ক, বিধবা এবং প্রতিবন্ধীদের ব্যাংক হিসাব থেকে চলতি অর্থ বছরের জুলাই- সেপ্টেম্বর এই তিন মাসের ভাতা ব্যাংক কর্মকর্তা- কর্মচারীরা একেবারেই গায়েব করে দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। বলা হচ্ছে এই টাকা রোহিঙ্গাদের আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়েছে।
এ বিষয়ে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক নাগড়া, মহম্মদপুর শাখার প্রিন্সিপাল অফিসার রতন কুমার সরকার বলেন, প্রত্যেককেই টাকা দেওয়া হয়েছে। কেউ না পেয়ে লিখিত অভিযোগ দিলে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মাগুরা জেলা প্রশাসক অতিকুর রহমান অসহায় ব্যক্তিদের টাকা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নামে আত্মসাতের খবরে বিষ্ময় প্রকাশ করে পুরো বিষয়টি তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন। একই সঙ্গে বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তপক্ষকে জানানো হবে বলে তিনি জানান।

স/এষ্

print

Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন