শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল হত্যাচেষ্টা মামলার আসামি ফয়জুর রহমান আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। গতকাল প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টা সিলেট মহানগর হাকিম তৃতীয় আদালতে জবানবন্দি প্রদান করে ফয়জুর। সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, অনলাইনে বিভিন্ন ধরনের ‘ওয়াজ শুনে’ জঙ্গি আদর্শে উদ্বুব্ধ হওয়ার কথা আদালতে জানিয়েছে ফয়জুর। জাফর ইকবালকে হত্যার উদ্দেশেই হামলা করার কথাও স্বীকার করেছে সে।

গত ৩ মার্চ শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে একটি অনুষ্ঠানে জাফর ইকবালের ওপর হামলা চালায় ফয়জুর রহমান। ঘটনার পরপরই আটক করা হয় ফয়জুরকে। পরে জাফর ইকবাল হত্যাচেষ্টা মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়। গত ৮ মার্চ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিলেট নগরীর জালালাবাদ থানার ওসি শফিকুল ইসলাম আদালতে ফয়জুরকে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড প্রার্থনা করেন। আদালত তা মঞ্জুর করে। ১০ দিনের রিমান্ড শেষে গতকাল বেলা দেড়টার দিকে ফয়জুরকে মহানগর হাকিম তৃতীয় আদালতে হাজির করা হয়। এর কিছু সময় পর ১৬৪ ধারায় ফয়জুরের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণ করেন আদালতের বিচারক হরিদাস কুমার। প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টা আদালতে জবানবন্দি প্রদান করে ফয়জুর। পরে সিলেট মহানগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (প্রসিকিউশন) অমূল্য কুমার চৌধুরী বলেন, আদালতে জাফর ইকবালকে হত্যাচেষ্টার বিষয়টি স্বীকার করেছে ফয়জুর। হত্যার উদ্দেশেই হামলা চালানোর কথা স্বীকার করেছে সে। সে আদালতকে জানিয়েছে, অনলাইনে বিভিন্ন ধরনের ওয়াজ শুনে জঙ্গি আদর্শে উদ্বুদ্ধ হয়। জাফর ইকবাল ইসলামবিদ্বেষী লেখালেখি করেন, এই ধারণা থেকে ফয়জুর তাকে হত্যা করতে চেয়েছিল। ফয়জুর কেন এই পথে এসেছে, সব বিস্তারিত বলেছে আদালতে। এক প্রশ্নের জবাবে এই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, ফয়জুরের সঙ্গে কোনো চক্র জড়িত কিনা, তা তদন্তের স্বার্থে বলা যাচ্ছে না।

স/মা

print

Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন