বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সাথে দ্বি-পাক্ষিক বৈঠক করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। রবিবার দুপুরে দিল্লিতে এই দুই নেতা একান্তে বৈঠক করেন। আজই দিল্লিতে রাষ্ট্রপতি ভবন কালচালার সেন্টার (আরবিসিসি)-এ শুরু হয়েছে সৌরবিদুৎ সম্পর্কিত জোট ‘ইন্টারন্যাশনাল সোলার অ্যালায়েন্স’ (আইএসএ)-এর একটি আন্তর্জাতিক সেমিনার। ওই সেমিনারেই যোগ দিতে এই মুহুর্তে ভারতে রয়েছেন আবদুল হামিদ। ওই সামিটে যোগ দেওয়ার ফাঁকেই বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতির সাথে সাক্ষাৎ করেন মোদি। বৈঠকে দ্বি-পাক্ষিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা হয় বলে জানা গেছে।

বৈঠক শেষে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবীশ কুমার ট্যুইট করে জানান, ‘আমাদের নিকটতম বন্ধু ও প্রতিবেশী’এর সঙ্গে বন্ধন আরও মজবুদের লক্ষ্যে আইএসএ সামিটের সাইডলাইনে প্রধানমন্ত্রী নরন্দ্রে মোদি বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। দুই নেতাই কানেকটিভিটি, উন্নয়ন সহযোগিতাসহ অন্য বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনা করেন’।

পরে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী অফিস (পিএমও) থেকেও ট্যুইট করে জানানো হয়, ‘আইএসএ সামিটের ফাঁকে বাংলাদেশ প্রেসিডেন্ট মি. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বৈঠক অত্যন্ত ফলপ্রসূ হয়েছে’।

তবে শুধু বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট-ই নয়, দিল্লিতে আইএসএ সামিটে যোগ দিতে আসা বিশ্বের কয়েকটি দেশের রাষ্ট্রপ্রধান ও প্রতিনিধিদের সঙ্গেও এদিন একান্তে সাক্ষাৎ করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী।

এর মধ্যে রয়েছেন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট মইত্রিপলা সিরিসেনা, সিসিলি’র প্রেসিডেন্ট ড্যানি ফউর, কমরোসের প্রেসিডেন্ট আজালি আসৌমানি, গায়ানার প্রেসিডেন্ট ডেভিড আর্থার গ্র্যাংগার।

শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট’এর সাথে মোদির বৈঠকের পর দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে আরেকটি ট্যুইট করে জানানো হয় ‘প্রতিবেশীই আগে। আইএসএ সামিটের ফাঁকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট এম. সিরিসেনার পঞ্চম ভারত সফরে তাঁর সাথে বৈঠক করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি’।

এর আগে নরেন্দ্র মোদি দিনের প্রথম দ্বি-পাক্ষিক বৈঠকটি করেন আবু ধাবি ক্রাউন প্রিন্স কোর্টের চেয়ারম্যান শেখ হামেদ বিন জায়েদ বিল আল নাহান-এর সাথে। বাণিজ্য, বিনিয়োগ, শক্তি, খাদ্য নিরপত্তা সহ একাধিক বিষয়ে দুইজনের মধ্যে কথা হয়।

স/মা

print

Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন