রাষ্ট্রায়ত্ত আট ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল করেছে ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি। আজ মঙ্গলবার দুপুরে মতিঝিলে বাংলাদেশ ব্যাংকের সম্মেলন কক্ষে এক জরুরি সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবিরের সভাপতিত্বে সভায় রাষ্ট্রায়ত্ত ১৪ ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের এমডিরা উপস্থিত ছিলেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী মুখপাত্র জি এম আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘আজকের মিটিংয়ে ওই পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্ত হয়েছে। পরীক্ষা কবে হবে তা পরে জানিয়ে দেওয়া হবে।’তিনি জানান, পরীক্ষা কেন্দ্রে আসন বিড়ম্বনার বিষয়টি খতিয়ে দেখতে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক-১ আহমেদ জামালের নেতৃত্বে একটি তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। তাতে সোনালী, জনতা, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিরা থাকবেন। বাংলাদেশ ব্যাংকের একজন জিএম থাকবেন সদস্য সচিব হিসেবে। কমিটিকে দুই সপ্তাহের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।গত ১২ জানুয়ারি বিকেলে সরকারি আট ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ‘সিনিয়র অফিসার (সাধারণ)’ পদে নিয়োগ পরীক্ষায় ঢাকার দুটি কেন্দ্রে সাড়ে পাঁচ হাজারের বেশি চাকরিপ্রার্থী আসন স্বল্পতার কারণে পরীক্ষা দিতে না পারায় তাদের জন্য পরীক্ষার নতুন তারিখ ঠিক করে কর্তৃপক্ষ।তবে ১২ জানুয়ারির পুরো পরীক্ষা বাতিলসহ নয় দফা দাবিতে আন্দোলনে নামেন পরীক্ষার্থীরা। গত সোমবার আন্দোলনরত অবস্থায় রাজধানী থেকে দুই চাকরিপ্রার্থীকে পুলিশ আটক করে। এর পর দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আন্দোলনকারীরা ঘোষণা দেন, আটককৃতদের ১২ ঘণ্টার মধ্যে ছেড়ে দেওয়াসহ ১২ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত পরীক্ষা বাতিল না করলে তারা কঠোর আন্দোলনে যাবেন।আট ব্যাংকে সিনিয়র অফিসার, অফিসার ও ক্যাশ অফিসার পদে নিয়োগের এই সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা বিভাগকে।অব্যাবস্থাপনার বিষয়ে তাদের ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে জানিয়ে আবুল কালাম আজাদ বলেন, তদন্ত প্রতিবেদন ও ব্যাখ্যা পাওয়ার পর পরীক্ষার বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

স/এন
Cubex Tech
print
Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন