নিজস্ব প্রতিনিধি : পূর্ব শত্রুতার জের হিসেবে এক শিশুকে ধর্ষন মামলায় জড়িয়ে গ্রেফতার করা হয়। পরবর্তীতে আদালত কথিত ধর্ষনকারী উক্ত শিশুকে জামিনে মুক্তি দেয়।
এ দিকে ধর্ষণের কোন আলামত এখনো পাওয়া যায়নি। ঘটনাটি ঘটেছে ভোলার বোরহান উদ্দিন উপজেলার ৩নং ওয়ার্ড এলাকায়। ধর্ষণ মামলার আসামী আলোচ্য শিশুটির নাম রাকিব (১৪), পিতা- মোঃ কামাল, কবির (৪০) ও নূরমোহাম্মদ (৪৫) নামের ব্যক্তিদেরও জড়ানো হয়েছে।
মামলার বাদী ইয়ানুর বেগম এর স্বামী বশির পাটওয়ারী ও বিবাদী শিশু রাবিক এর পিতার নাম নশু পাটওয়ারী পরস্পর আত্মীয়। পূর্ব শত্রুতার জের হিসেবেই রাকিবকে মামলায় জড়ানো হয়েছে। জানা যায়, রাকিব এর পিতা ও কথিত ভিক্টিম পামিয়ার পিতার দীর্ঘদিন যাবৎ জায়গা সম্পত্তি নিয়ে বিবাদে জাড়িয়ে আছে সে কারনে শত্রুতা উদ্ধারের জন্য এই মর্মে তার পিতা অভিযোগ দায়ের করে যে, ১৩ বছরের রাকিব নাকি তার ১১ বছরের মেয়ে লামিয়কে ধর্ষণ করেছে। অন্যান্য আসামীরা ধর্ষণ মামলার আসামী রাকিবকে ধর্ষণের পর ছিনিয়ে যায়। অনুসন্ধান চালিয়ে স্বাক্ষী প্রমাণের ভিত্তিতে জানা যায়, মামলাটি সাজানো। এক শিশু অপর এক শিশুকে ধর্ষণ করার বিষয়টি মিথ্যা। এই নিয়ে এলাকায় ব্যপক তোলপাড় শুরু হয়েছে। প্রশাসনের মাঠ পর্যায়ের কিছু লোক এই ঘটনার সাথে জড়িত বলে প্রমান পাওয়া গেছে। এলাকাবাসী এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবী করেছেন।

স/এষ্

print

Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন