আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, ক্ষমতাসীন সরকারই নির্বাচনকালীন অন্তর্বর্তী সরকারের দায়িত্ব পালন করবে।

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স হলে ‘৭ মার্চের মহাকাব্য-বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশর ইতিহাস’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন।

‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে এখন দুটি পথ খোলা আছে। হয় তিনি সম্মানজনকভাবে ক্ষমতা ছেড়ে দিবেন। না হয় তাকে অসম্মানজনকভাবে টেনে-হিঁচড়ে ক্ষমতা থেকে নামানো হবে।’-বিএনপির নেতা মওদুদ আহমদের এমন বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, এটা অগণতান্ত্রিক বক্তব্য। এ সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে পারলে ঠেকান। এখন আর দেশবাসী ২০০১ সালের মতো ধ্বংসলীলা দেখতে চায় না।

রোহিঙ্গাদের ফেরতের বিষয়ে তোফায়েল বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার রোহিঙ্গা ইস্যুকে আন্তর্জাতিক ইস্যুতে পরিণত করেছে। বিশ্ববাসী রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশ সরকারের প্রশংসা বিএনপি সহ্য করতে পারছে না। তারা শুধু সমালোচনা করছে।

বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের বিষয়ে তিনি বলেন, এ ভাষণের মধ্য দিয়ে একটি নিরস্ত্র জাতিকে সসস্ত্র জাতিতে পরিণত করেছিলেন। বাঙালি জাতির ন্যায্য অধিকারের জন্য তিনি জীবনের ১২টি বছর কাটিয়েছেন কারাগারে। তার পুরো জীবনটাই ছিলো কাব্যিক। বঙ্গবন্ধু ৭ মার্চ ভাষণের শব্দ চয়নে বিচক্ষণতার পরিচয় দিয়েছেন।

সেমিনারে আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক, স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন প্রমুখ।

স/এষ্

print

Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন