গত ৮ই নভেম্বর ২০১৭ ইং তারিখে CEDA, Access Alumni Society of Bangladesh ( AASB) এর সাথে যৌথ উদ্যোগে The American Center, Dhaka -য় একটি প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করে। এটি জাতিসংঘের টেকশই উন্নয়ন লক্ষ্যের আওতাধীন ১৭ নাম্বার লক্ষ্য পূরনের সম্পূরক হিসেবে অবদান রয়েছে। ঢাকার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র- ছাত্রীরা এতে সতঃস্ফূর্ত ভাবে অংশগ্রহণ করেছে। অনুষ্ঠানের শুরুতে বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস এবং সিভিল ডিফেন্স -এর পরিচালক এ.কে.এম. শাকিল নেওয়াজ ভূমিকম্পের পরবর্তী ব্যবস্থাপনার উপর বক্তব্য রেখেছেন। ভূমিকম্পের কারন এবং পরবর্তী দূর্যোগের উপর আলোকপাত করে তিনি উন্নত এবং উন্নয়নশীল দেশগুলোর দূর্যোগ প্রশমন ব্যবস্থাপনার তুলনামূলক চিত্র তুলে ধরেন। দুর্যোগ প্রশমন এবং দুর্যোগ পরবর্তী পুনর্বাসন ব্যবস্থা সম্পর্কেও তিনি আলোচনা করেন যা সেমিনারে আগত অংশগ্রহনকারীদের জন্য কৌতুহলোদ্দীপক ছিল। এরওপর বক্তব্য রাখেন AASB এর বর্তমান সভাপতি মুহাম্মদ ফেরদৌস। কমিউনিটি কলেজ ইনিশিয়েটিভ প্রোগ্রাম নামক একটি এক বছর মেয়াদী ফেলোশিপ সম্পর্কে আলোকপাত করেন যা মূলত নয়টি বিষয়ে দেয়া হবে।

অন্য আরেকটি স্কলারশিপ যা একটি সেমিস্টার ব্যাপি ছাত্র-ছাত্রীদের আমেরিকায় পড়ার সুযোগ দিয়ে থাকে য়ার নাম “গ্লোবাল ইউগ্র্যাড”। এ দুটি সুযোগ আমেরিকার স্টেট ডিপার্টমেন্ট করে দিয়ে থাকে। অনুষ্ঠানে পরবর্তী পর্যায়ে সেফটি স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী পরিচালক ও CLVT প্রশিক্ষক জনাব সাখাওয়াত স্বপন অগ্নিকান্ড ও অগ্নিনির্বাপন সম্পর্কে আলোচনা করেন। তিনি অগ্নিকান্ডের কারন ও অগ্নিনির্বাপন সামগ্রী ও তাদের বৈশিষ্ট্য, অগ্নিনির্বাপক সমূহের আন্তর্জাতিক কালার কোড ও যথাযথ ব্যবহার বিধি সম্পর্কে আলোকপাত এবং ফায়ার সার্ভিসের জরুরী নাম্বার মুখস্থ করার মত প্রাণবন্ত সেশন উপহার দিয়েছেন। এরপর CEDA এর সেক্রেটারি জেনারেল ও DMR এর প্রতিষ্ঠাতা জাকারিয়া আলম একটি প্রেজেন্টেশান প্রদান করেন। সেখানে তিনি বাংলাদেশ এর বিভিন্ন দুর্যোগ ও দূর্ঘটনার তথ্যমুলক সচিত্র বিবরণী তুলে ধরেন। অতঃপর প্রাথমিক চিকিৎসার সেবা বিষয়ক একটি বেসিক ট্রেনিং অনুষ্ঠিত হয়। পুরো অনু্ষ্টান জুড়েই ছাত্র-ছাত্রীরা দুর্যোগ পুর্ববর্তী, পরবর্তী ও প্রশমন ব্যবস্থাপনা এবং সেচ্ছাসেবা সম্পর্কে জানতে পারে। অনুষ্ঠানের এক পর্য়ায়ে সোনিয়া জামান, মুহাম্মদ ফেরদৌস, মিজান রহমান এবং রিয়াজুল কবির কে সামজিক উন্নয়ন কর্মকান্ডে অবদান রাখার জন্য বিশেষ সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

CEDA-DMR ভলান্টিয়া উইং কো-ফাউন্ডার এফ.কে.এম তানভীর, মেহেদি হাসান রাব্বী এবং মো: জাওয়াদুল ইসলাম খান সোহান নিজ নিজ পরিচয় দেন এবং “বন্যর্তদের সেবায় একদিন” ইভেন্টে তাদের অবদান তুলে ধরেন। এই ইভেন্টে যারা গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন তাদের কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। সর্বশেষে ভলান্টিয়ারদের মধ্যে সার্টিফিকেট বিতরণ করা হয়।

স/মা

print

Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন