আজ সু-সাহিত্যিক কাজী ইমদাদুল হকের ১৩৫তম জন্মজয়ন্তী

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ॥
আজ সু-সাহিত্যিক কাজী ইমদাদুল হকের ১৩৫তম জন্মজয়ন্তী। এ উপলক্ষে সাহিত্যিক ইমদাদুল হকের জন্মস্থান পাইকগাছায় বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে। কাজী ইমদাদুল হক স্মৃতি পরিষদের উদ্যোগে রোববার সকালে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সাহিত্যিকের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পন, ডকুমেন্টারি ফিল্ম প্রদর্শন, বই বিতরণ, পদক প্রদান, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সহ নানা কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে। ইউএনও মোঃ ফকরুল হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এ্যাডঃ শেখ মোঃ নূরুল হক। সম্মানিত অতিথি থাকবেন, কাজী ইমদাদুল হকের পৌত্রী কাজী নুসরাত সুলতানা, কাজী ইয়াসমিন আলম। বিশেষ অতিথি থাকবেন, উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডঃ স ম বাবর আলী, পৌর মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর, সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল আউয়াল ও ওসি আমিনুল ইসলাম বিপ্লব সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।
উল্লেখ্য, অসমাপ্ত “আব্দুল্লাহ” উপন্যাসের রচয়ীতা, সু-সাহিত্যিক কাজী ইমদাদুল হক ১৮৮২ সালের ৪ নভেম্বর খুলনা জেলার পাইকগাছা উপজেলার গদাইপুর গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন। ইমদাদুল হকের পিতা কাজী আতাউল হক। ইমদাদুল হক ১৯০৪ সালে খুলনা শহরে মৌলভী আব্দুল মকসুদ সাহেবের জৈষ্ঠ্য কন্যা সামসুন্নেসা খাতুনকে বিয়ে করেন। কাজী ইমদাদুল হকের ৫ পুত্র কাজী আনারুল হক, কাজী সামছুল হক, কাজী আলাউল হক, কাজী নুরুল হক, কাজী টুকু (মৃত) এবং ২ কন্যা জেবুন্নেছা ও লতিফুন্নেছা। কাজী ইমদাদুল হকের পুত্র কাজী আনারুল হক শিক্ষা মন্ত্রী ছিলেন। শিক্ষা বিভাগে বিভিন্ন কাজে অসামান্য দক্ষতা, গভীর দায়ীত্ববোধ ও উদ্ধাবনী শক্তির স্বীকৃতি স্বরুপ তৎকালীন বৃটিশ সরকার কাজী ইমদাদুল হককে ১৯১৯ সালে খান সাহেব এবং ১৯২৬ সালে তাকে খান বাহাদুর উপাধীতে ভূষিত করেন। কাজী ইমদাদুল হক ১৯২৬ সালে ২০ মে মাত্র ৪৪ বছর বয়সে কলকাতায় মৃত্যুবরণ করেন।

স/মা

print

Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন