অনলাইন ডেস্ক

তথ্য প্রযুক্তি ও ইন্টারনেটের কল্যাণে হাতের মুঠোয় এখন গোটা বিশ্ব। স্মার্টফোন অথবা কম্পিউটারে স্ক্রিনে ক্রমাগতই উকি দেয় বিভিন্ন পর্ন ছবি ও সাইটের লিংক।

আর মুহূর্তের মধ্যেই ক্লিক করে এসব সাইটে নীল ছবি দেখতে প্রবেশ করছে কিশোর থেকে শুরু করে অশীতিপর বৃদ্ধও। কিন্তু জানেন কি পর্নোগ্রাফি দেখে নিজের কত বড় ক্ষতি করছেন আপনি।

অনেকে ভেবে থাকেন পর্নোগ্রাফি দেখলে বা অ্যাডাল্ট লেখা পড়লে সহবাসের সময় পারফরম্যান্সের উন্নতি হবে, তাহলে আপনার ভাবনা আজই বদলান।

গবেষকদের মতে, প্রতিদিন যদি আপনি একই কাজ করেন তাহলে বাস্তবে মানে সহবাসের সময় আপনার রোমাঞ্চটাই শেষ হয়ে যায়। সহবাসের আনন্দ উপভোগ করার জন্য আমাদের মস্তিষ্কের অন্যতম নিউরো ট্রান্সমিটার ডোপামিন দায়ী। কিন্তু প্রতিদিন পর্নোগ্রাফি দেখলে মস্তিষ্ক ধীরে ধীরে ব্যাপারটার সঙ্গে অভ্যস্ত হয়ে পড়ে। আর মনও সেখানে খুঁজে পায় না নতুন কোনও রোমাঞ্চ। আর শারীরিক ক্ষতি তো রয়েছেই।

এছাড়া ঘন ঘন আপনি অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন। কাজ-কর্মে উদাসীনতা দেখা দিতে পারে। মেজাজ খিটখিটে থাকতে পারে। হারাতে পারেন স্মৃতিশক্তিও।

শুধু তত্ত্বকথাই নয়। এ নিয়ে বাস্তবেও গবেষকরা অনেকের সঙ্গেই কথা বলেছেন, যারা কৈশোর থেকে নিয়মিত এইসব সাইট দেখতেন। তাদের সোজাসাপটা স্বীকারোক্তি, প্রথম প্রথম পর্নোগ্রাফি দেখে খুব উত্তেজিত লাগলেও, পরে ওই নকল জিনিসগুলো বহুবার দেখতে দেখতে নতুন কোনও কিছু খুঁজে পেতাম না।

আর বিয়ের পর সহবাসের সময় জোর করে মনে এরকম কোনও অনুভূতি বা রোমাঞ্চ আনাটা ছিল বেশ কষ্টসাধ্য। যা সংসারে অশান্তি ডেকে আনছে অনেক ক্ষেত্রে।

 

স/মা

print

Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন