ঝালকাঠী প্রতিনিধি 

কাঠালিয়া উপজেলা আমুয়া হাসপাতালে টাকার বিনিময় চলছে এম.সির ব্যবসা অসহায় জন সাধারণ পায়না নেজ্জ অধিকার। টাকা হলে মিলে এম.সি হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়। ডাক্তাদের মা বাব হলো রাজনীতি বিদ ও আমুয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফোরকান সিকদার। কোন ক্রমে দু গ্র“পে সাথে মারামারি করে ভর্তি হলে যার টাকা বেসি ও মেম্বার, ফোকান চেয়ারম্যান, দালাল চক্র আছে তাদের সামান্য একটি সেলাই থাকলে ও ২৬ এম.সিতে পরিনত করে মেম্বার, ফোকান চেয়ারম্যান, দালাল চক্র থাকেনা ডাক্তাদের সঠিক চিকিংসা। এ বিষয় মানবজমিন, স্বাধীন সংবাদ, নব চেতনা, মুভি বাংলা টিভি জেলা প্রতিনিধি মোঃ রাজিব তালুকদার জানান। এমন ই ফোকান চেয়ারম্যান, দালাল চক্রে পরেছে আমার বাবা। আরও জানান আমাদের বাড়িতে জমিজমা নিয়ে চাচাদের সাথে সামান্য কথা কাটাকাটি সহ এক পযায় মারামারি হয় এতে আমার বাবা আঃ মজিদ তালুকদার, আমার বোন মুকতি, আমার চাচা মোঃ খালেক তালুকদার সহ আমাকেও ভারাটে সন্ত্রাসী দিয়ে মারদর করে ও জখম করে ।

আমুয়া হাসপাতালে চিকিংসা নিতে গেলে সঠিক চিকিংসা পাননি বলে জানায় মোঃ রাজিব তালুকদার। পরবর্তিতে দেখা যায় রাজিবের অপর গ্র“প মোঃ ফিরোজ আলম তালুকদার ধারানো বেলেট দিয়ে মাথা চিরে জখম অবস্থায় ফোকান চেয়ারম্যান, দালাল চক্র নিয়ে হাজির হয় হাসপাতালে। এ বিষয় রাজিবের বাবা জানান আমি হাসপাতালে চিকিংসা ধীন অবস্থায় থাকায় ফোকান চেয়ারম্যান, দালাল চক্র ও হাসপাতালে টি,এস তাপস ও সহকারী ডাক্তার আল মামুন থাকা অবস্থায় ফোকান চেয়ারম্যান, দালাল চক্র নাম কাটানোর জন্য ভয়বিত্তি সহ অকত্ত বাসায় গালাগালি করে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় যে হাসপাতালের ডাক্তারা নেসায় টাল হয়ে সবসময় এম কি মোঃ রাজিব তালুকদার প্রতিপক্ষ ফিরোফ আলম তালুকদার কে ৩০ হাজার টাকা বিনিময় সামান্য জখমকে ২৬ এম.সিতে পরিণত করবে। এ বিষয় সাংবাদিক রাজিব তালুকদার ঝালকাঠি জেলা ডাক্তাদের প্রদান সিবিল সারজের্ন্ট কে জানতে চাইলে তিনি জানান এম.সি বিষয় আমাদের কোন হাত নেই এ বিষয় আমুয়ার চেয়ারম্যান ফোরকান সিকদার ও কাঠালিয়ার ইএনও সাথে আলাপ করেন । এ অবস্থায় দেখা জায় সঠিক সেবা ও সঠিক এম.সি অসহায়রা পাবেনা।

স/মা

print

Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন

Power by

Download Free AZ | Free Wordpress Themes