বিএনপি নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের যে প্রস্তাব দেওয়ার কথা বলছে, সেটিকে নির্বাচন ভণ্ডুল ও অস্বাভাবিক সরকার গঠনের ক্ষেত্র তৈরির চক্রান্ত হিসেবে দেখছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। রোববার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির উদ্যোগে আয়োজিত `মিট দ্য রিপোর্টার্স` এ কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী।

হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘একটি নির্বাচিত সরকারের কাছ থেকে আরেকটি নির্বাচিত সরকারের দায়িত্ব গ্রহণের সময় অনির্বাচিত নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের প্রস্তাব কার্যত নির্বাচনকে ভণ্ডুল করা, অস্বাভাবিক সরকার গঠনের ক্ষেত্র তৈরির চক্রান্ত ছাড়া আর কিছুই না। মূলত খালেদা জিয়া ও বিএনপি মামলা থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য সরকারের সঙ্গে দরকষাকষির ক্ষেত্র তৈরি করছে।’

বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচন বর্জনের হুমকি, গণতন্ত্রকে জিম্মি করার হুমকি। এটি করতে দেওয়া হবে না।’

সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যার আইনগত নিষ্পত্তি না হওয়াকে ব্যর্থতা হিসেবে মনে করেন হাসানুল হক ইনু। তবে তিনি বলেন, ‘এই ব্যর্থতা কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা চলছে।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘জাতীয় সংসদের আগামী অধিবেশনে সম্প্রচার আইন উত্থাপন করা হবে। এর মাধ্যমে সম্প্রচার কমিশন গঠন হবে। এই কমিশন ইলেকট্রনিক্স ও অনলাইন গণমাধ্যমের ছাড়পত্র ও বাতিল করতে পারবে। এটা আধা বিচারিক শক্তিশালী সংস্থা হবে।’

সাংবাদিকদের ওয়েজবোর্ড গঠনের জন্য প্রাথমিক কাজ শেষ করা হয়েছে বলে জানান তথ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘এখন এই বোর্ডের প্রধান হিসেবে একজন বিচারপতির নাম চাওয়া হয়েছে আইনমন্ত্রীর কাছে। এটি হলেই বোর্ড গঠন হবে।’ এবারে ইলেকট্রনিক্স গণমাধ্যমকেও ওয়েজবোর্ডে অন্তর্ভুক্ত করা হবে বলে জানান মন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তৃতা রাখেন ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মোরসালীন নোমানী।

 স/শা
print
Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন