এম.এম.রহমান,মুন্সীগঞ্জ

মুন্সীগঞ্জের সদর উপজেলার কাটাখালির ভিটিশীল মন্দির এলাকায় বারেকের ন্যাংটার মাজারে দুই নারীকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে । বুধবার সকালে খবর পেয়ে মাজারের একটি ঘর থেকে লাশ দুটি উদ্ধার করে পুলিশ ।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ধারনা হরা হচ্ছে মঙ্গলবার রাতের কোনো একসময় দুই নারীকে হত্যা করা হয়। কারা এবং কেন এ ঘটনা ঘটিয়েছে এ ব্যাপারে এখনো কোনো কিছু জানা যায়নি। নিহতদের মধ্যে একজন মাজারের নারী খাদেম আমেনা বেগম (৬০), আরেকজন তাইজুন খাতুন (৪৫)। তিনি ঢাকার বাসিন্দা। আমেনাকে তিনি খালা বলে ডাকতেন। গতকালই তিনি এখানে বেড়াতে এসেছিলেন। এখানে এই মাজারটিতে বৃহস্পতিবার জিকির হয়। এ উপলক্ষে বিভিন্ন জায়গা থেকে লোকজন আসে।এদিকে, মুন্সীগঞ্জের সদর উপজেলার কাটাখালির ভিটিশীল মন্দির এলাকায় বারেকের ন্যাংটার মাজারে দুই নারীকে গলা কেটে হত্যার আগে ধর্ষণ করা হয় বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।
মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর হোসনে আরা জানান, গতকাল রাত ৯টার দিকে তিনি মাজার থেকে বাড়ি যান। তখন আমেনা ও তাইজুন রাতে এক কক্ষে ঘুমিয়ে ছিলেন। আজ সকাল সাড়ে ৭টার দিকে তাদের ডাকতে এসে তিনি গলা কাটা লাশ দেখতে পান। পরে পুলিশকে খবর দেন। তিনি আরো জানান, আমেনার স্বামী বারেকের নামেই এই মাজার চলছে। আমেনা এর রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বে ছিলেন। আমেনা ৩০ বছর ধরে এই মাজারে আছেন। তার গ্রামের বাড়ি পাশের গুয়াগাইচ্ছা গ্রামে। আমেনার ছেলেমেয়ে রয়েছে।
ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, মাজারটি একটি টিনশেড ঘরের মধ্যে। সামনে একটি সাইনবোর্ড রয়েছে। সেখানে লেখা আছে, ‘হযরত শাহ সুলেমান লেংটা বাবার (পাগল) দিলু লেংটা’র মাজার। স্থানীয়দের কাছে এটি ‘বারেক ন্যাংটা’র মাজার হিসেবে পরিচিত। সাইনবোর্ডে মাজারের খাদেম হিসেবে ‘মাসুদ লেংটা’র নাম উল্লেখ রয়েছে। লাশ দুটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে । সেখানে চলছে নিহতদের স্বজনদের আহাজারি ।#

স/মা

print

Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন