কুষ্টিয়া ২৩ আগষ্ট,২০১৭॥

কুষ্টিয়ায় ৯ বছরের শিশু শারমিন ধর্ষণ মামলায় সৎ বাবা মনিরুল ইসলামের যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানার রায় দিয়েছে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ১ম আদালতের বিচারক রেজা মো. আলমগীর হাসান।
বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টায় জনাকির্ণ আদালতে তিনি এ রায় ঘোষণা করেন।
মামলার বিবরণে জানাগেছে, খড়ি কুড়ানোর নাম করে ২০১৬ সালের ২৬ আগস্ট বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে কুষ্টিয়ার মিরপুরের বাজিতপুর দাড়ীয়ার মাঠে মেহগনির বাগানে তার সৎ বাবা মনিরুল ইসলামে শিশু শারমিন খাতুনকে ধর্ষণ করে। সেখানে শিশু শারমিনের রক্তাত্ব অবস্থায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায় ধর্ষক মনিরুল।
পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ব্যাপারে শারমিনের পিতা সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।
মামলাটি দীর্ঘ শুনানী শেষে আজ বিচারক ধর্ষক মনিরুল ইসলামকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানার রায় ঘোষণা করেন।
এ সময় আদালতের কাঠগড়ায় আসামী উপস্থিত ছিল। পরে তাকে পুলিশের প্রহরায় জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দ্ওেয়া হয়। ধর্ষক মনিরুল চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গার হারদী সর্দ্দার পাড়ার মতলেব আলীর ছেলে।

স/মা

print

Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন