খাইরুল ইসলাম, ঝালকাঠি প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জ থেকে স্বামীর খোঁজে ঝালকাঠি এসে এক অঃত্মসত্তা গৃহবধূ শ্বশুর বাড়ির নির্মম নির্যাতনের শিকার হয়েছে। লিজা আক্তার রূপা নামের ওই নারীকে আহত অবস্থায় ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে ঝালকাঠি জেলা পুলিশ। ঝালকাঠি সদর উপজেলার দারাখানা গ্রামে গত শনিবার ১১ আগস্ট এ নির্যাতনের ঘটনা ঘটে।
পুলিশ ও নির্যাতিত নারী জানান, নারায়ণগঞ্জের একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতেন রূপা। সেখানে রূপার সাথে পরিচয় হয় হোটেল বাবুর্চি রাজু হোসেনের সাথে। দেড় বছর পুর্বে তাদের বিয়ে হলে তারা নারায়ণগঞ্জে বসবাস করে আসছিল। সম্প্রতি রূপা অšত্মস^ত্তা হয়ে পড়েন। কিন্তু গত ১৫দিন পূর্বে স্বামী রাজু রূপাকে রেখে পালিয়ে যায়। গত শনিবার স্বামীর খোজে রূপা শ্বশুর বাড়ি ঝালকাঠিতে আসেন। রূপা শ্বশুর বাড়িতে আসাকে কেন্দ্র করে অšত্মস্বত্তা রূপাকে তার শ্বাশুরী ও স্বজনরা বেধরক মারদর করে। পরে স্থানীয়রা রূপাকে উদ্ধার করে জেলা পুলিশের কাছে নিয়ে আসে। পুলিশ রূপাকে হাসপাতালে ভর্তি করে।
ঝালকাঠি সদর হাসপাতালের চিকিৎসক মৃণালকান্তি ব্যন্দোপাধ্যায় জানান, রূপাকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তবে তার পেটের বাচ্চার ক্ষতি হয়েছে কী না তা নিশ্চিত হওয়ার জন্য কিছু পরীক্ষা করানো হচ্ছে। রিপোর্ট আসার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।
ঝালকাঠি অতিরিক্ত পুলিশ সদর সার্কেল এমএম মাহমুদ হাসান জানিয়েছে, রূপার স্বামী পলাতক আছে। তাকে খুঁজে বের করে স্বামীর সংসারে ফিরিয়ে দেয়ার চেষ্টা চলছে। কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার দড়িগোয়ালি গ্রামের দরিদ্র নজরুল ইসলামের মেয়ে লিজা আক্তার রূপা তার সন্তানকে নিরাপদে ভূমিষ্ঠ করতে চান। আর পুর্নরায় ফিরে পেতে চান তার স্বামীর সংসার।

স/এষ্

print

Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন