জাহিদুল ইসলাম, কাঠালিয়া (ঝালকাঠি) প্রতিনিধি:
ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় খলিলুর রহমান নামে এক ব্যবসায়ী যুবককে পরিকল্পিতভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে লোহার রড দিয়ে মাথায় আঘাত করে নদীতে ফেলে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আশংকাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রোববার সন্ধ্যায় উপজেলার শৌলজালিয়া খেয়াঘাটে এ ঘটনা ঘটে।

ট্রলারের প্রত্যক্ষদর্শী একাধিক যাত্রি জানায়, স্থানীয় সেন্টারের হাট বাজারের মোবাইল ফোন সামগ্রী ব্যবসায়ী খলিলুর রহামন সিকদার (৩০) রোবাবর সন্ধ্যায় বেতাগী থেকে খেয়াযোগে বিষখালী নদী পাড় হয়ে শৌলজালিয়ায় আসছিল। খেয়া কিনারে ভিরানোর সাথেই দক্ষিণ শৌলজালিয়া গ্রামের ফজলুল হকের ভখাটে ছেলে আবির (২৫) ট্রলারে থাকা লোহার হ্যান্ডেল দিয়ে মাথায় একাধিক আঘাত করে নদীতে ফেলে দেয়। অনেকে এ ঘটনা দেখে ডাকচিৎকার দিলে লোকজন নদী থেকে খলিলুর রহমানকে সংঙ্গাহীন অবস্থায় উদ্ধার করে। খলিলের পরিবারের অভিযোগ পূর্ব শত্রুতার জেরে পরিকল্পিতভাবে খলিলকে হত্যা উদ্দেশ্যে লোহার হ্যান্ডেল দিয়ে পিটিয়ে নদীতে ফেলে দেয় সন্ত্রাসী আবির হোসেন।

শৌলজালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মাহমুদ হোসেন রিপন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, খলিলকে নদী থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয়রা। আমি বিষয়টি জানার পর যতদ্রুত সম্ভব আশংকাজনক অবস্থায় খলিলকে প্রথম বেতাগী উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ও পরে এম্বুলেন্সযোগে বরিশাল শে-রই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করি।

কাঠালিয়া থানার উপপরিদর্শক আব্দুস সালাম জানান, এ ঘটনায় এখনও কোন মামলা হয়নি। তবে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

স/এষ্

print

Facebook Comments

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন