বগুরায় সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী অনন্যা হীরার উপর সন্ত্রাসী হামলা

বগুরায় সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী অনন্যা হীরার উপর সন্ত্রাসী হামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক: বগুড়ার গাবতলী ভান্ডারা গ্রামে গত ১৩ মার্চ পূর্ব  শত্রুতা ও জমি দখলকে কেন্দ্র করে সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী অনন্যা হীরার উপরে সন্ত্রাসী মামলা চালানো হয়েছে। এতে তিনি গুরুতর আহত হয়ে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নেন।

অনন্যা হীরা জানান, ভুমি দস্যু লিটন ভান্ডার মৌজার ৪০৮ ও ৪০৯ নং দাগ সম্পত্তির দক্ষিন পাশ দিয়ে পূর্ব হইতে পশ্চিমে জনসাধারণের চলাচলের সরকারী খাস জমির উপর তৈরি রাস্তাটি নিজের নামে রেকর্ড করে নেন। গত এক বছর ধরে আমার ব্যক্তি মালিকানা জমির উপরে ৭-নং দুর্গা হাঁটা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন মিঠুর ক্ষমতা দাপোট দেখিয়ে আমার জমিটি জবর দখল করে রাস্তা বানানোর অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

www.linkhaat.com

আমি আমার নিজস্ব সম্পত্তি রক্ষা করার জন্য আদালতের দারস্থ হই। জেলা বগুরা গাবতলী থানা সহকারী জর্জ আদালত, মোকর্দ্দমা নং-৫৫/২০২০অন্য চলোমান। গাবতলী সিনিয়র সহকারী জর্জ তথ্য উপাত্ত যাচাই করে আমার উল্লেখিত নালিশী সম্পত্তিতে আসামি গনের বিরুদ্ধে অনু প্রবেশ ও বেআইনি হস্তক্ষেপের উপর ০৩/১২/২০২০ইং তারিখে এক নিষেধাজ্ঞা জারী করে।

এর পর থেকে সন্ত্রাসী লিটন বাহিনী আমাকে হত্যা করার হুমকি দিয়ে আসছে। পরবতীতে বিষয়টি আমি আদালতে অবগতো করলে বিজ্ঞ আদালত আমার পক্ষে একটি আদেশনামা গাবতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্র্তা বরাবর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের আদেশ করেন।

বিজ্ঞ আদালতের আদেশক্রমে ১৩/০৩/২০২১ইং সময় আনুমানিক ১টা ৩০মিনিট গাবতলী থানার ওসি তদন্ত মো:আনোয়ার হোসেন। আসামী গনের বিরুদ্ধে নোটিশ জারি করেন। নোটিশ পেয়ে লিটন বাহিনী তার দলবল সহ লাঠি ও দেশী অস্ত্র নিয়ে আমার জমিতে বেআইনি অনুপ্রবেশ করে আমাকে ও আমার শিশু বাচ্চা তাইওয়ানকে চারপাশ দিয়ে ঘিরে এলো পাথাড়ি পিটিয়ে গায়ের কাপড় ওরনা ছিড়ে ফেলে । আমার হাত থেকে আই ফোন ৭ যার মুল্য ১.০০০০০টাকা। ছিনিয়ে নিয়ে ভেঙে ফেলে। ব্যাবহারিত স্বর্ন অলংকার সবই তারা ছিনিয়ে নেয়।

এ ব্যাপারে লিটন বাহিনীর ১৮ জনের নামে গাবতলী থানায় একটি মামলা হয়েছে। মামলা নং ১৩/তারিখ ২৪/৩/২১ইং সন্ত্রাসী লিটন বাহিনী এখনো আমার জমিতে বে-আইনি অনুপ্রবেশ করে দাঙ্গা হাংগামা করে যাচ্ছে। এলাকার লোক এই বাহীনির ভয়ে মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছে না । কেউ কিছু বললে তাদেরকে মারার হুমকি দেয় ।

লিটন বাহিনী আমাকে আমার জমিতে কাজ করতে দিচ্ছে না। হুমকি দিয়ে বলে জমিতে আসলে এবার তোকে পিটিয়ে মেরে ফেলবো। ভুমিদস্যু লিটন বাহিনী যে কোন মুহুর্তে আবার আমার জান-মালের উপরে হামলা করতে পারে।

আমি এখোন জীবনের চরম নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছি । আমার কিছু হলে লিটন বাহিনী ও ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন মিঠু সরাসরি ভাবে দায়ি থাকবে। এখোন কার পরিস্থিতিতে আমি লিখিত ভাবে গাবতলী থানায় জানিয়েছি । থানা কর্তৃপক্ষ এই ব্যাপারে নিরব থাকার কারন অজানা ।

উল্লেখ্য অনন্যা হীরা জাতীয় নিউজ পোর্টল চমক নিউজের স্টাফ রিপোর্টর ও বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন পরিষদের অনুসন্ধান কর্মকর্তা হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।

স/এষ্

Print Friendly, PDF & Email
Spread the love

Warning: A non-numeric value encountered in /home/chomoknews/public_html/wp-content/themes/Newspaper/includes/wp_booster/td_block.php on line 997