সম্পত্তির লোভে মাকে খুন : করা হয় অপহরণ নাটক

সম্পত্তির লোভে মাকে খুন : করা হয় অপহরণ নাটক

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে মাকে হত্যার পর বস্তাবন্দী লাশ পানিতে ফেলে দেওয়ার ৩৪ দিন পর উদ্ধার করেছে কুষ্টিয়া জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। সম্পত্তির লোভে এ হত্যাকান্ড ঘটানো হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। বুধবার বেলা ১১টায় কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এসএম তানভীর আরাফাত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান।

পুলিশ সুপার আরও বলেন,নিহত হতভাগী ওই মায়ের নাম মমতাজ বেগম। তার বাড়ি কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার পোড়াদহ ইউনিয়নের দক্ষিণ কাটদহ এলাকায়। এঘটনায় ঘাতক ছেলেসহ জড়িত অপর দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

www.linkhaat.com

বিফিংয়ে পুলিশ জানায়,মমতাজ বেগমের স্বামী মারা যাওয়ার পর তিনি একমাত্র ছেলে মুন্না বাবুর সঙ্গে বসবাস করতেন। তার তিন মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে। গত ২০ জানুয়ারী ছেলে মুন্না তার বন্ধু রাবিব ও চাচা আব্দুল কাদের মিলে মমতাজকে হত্যা করে লাশ বস্তাবন্দী করে পুকুরে ফেলে দেয়।

পরে ২১ জানুয়ারী ছেলে মুন্না বাবু মিরপুর থানায় তার মাকে কে বা কারা অপরণ করেছে এই মর্মে জিডি করেন। শুধু তাই নয়, এরপর মুন্না তার বন্ধু রাব্বিকে অপহরণকারী সাজিয়ে তার দুলাভাইয়ের কাছে ফোন করিয়ে ৫লাখ টাকা দাবী করেন। মায়ের সম্পত্তির লোভেই এই হত্যাকান্ড বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে।

স/এষ্

Print Friendly, PDF & Email
Spread the love

Warning: A non-numeric value encountered in /home/chomoknews/public_html/wp-content/themes/Newspaper/includes/wp_booster/td_block.php on line 997