বাঘারপাড়ায় কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও ক্রেষ্ট বিতরণ

বাঘারপাড়া (যশোর) প্রতিনিধি : বাঘারপাড়ায় মেধার স্বীকৃতি ও প্রতিযোগিতার মনোভাব সৃষ্টির লক্ষ্যে বিভিন্ন ক্যাটাগরির শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও ক্রেষ্ট বিতরণ করা হয়েছে।

গত রবিবার রাত ৯টায় এগারোখান ডেভলপমেন্ট ফোরাম’র (ইডিএফ) আয়োজনে সংগঠনের ৯ম প্রতিষ্ঠাবার্ষীকি উপলক্ষ্যে অনলাইণে আলোচনা সভা ও কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা -২০২০ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদশ কষিব্যাংকের অবসরপ্রাপ্ত উপ-মহাব্যাবস্থাপক ঘনশ্যাম মজুমদার।

www.linkhaat.com

প্রধান অতিথি হিসাব ভার্চুয়াল বক্তব্য রাখেন, যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ও এগারোখানের কৃতি সন্তান ডাক্তার অজিত বিশ্বাস। বিশেষ অতিথি ছিলেন, আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের পরিচালক বিধান গোস্বামী, মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনিস্টিটিউিটের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা শচীদ্রনাথ বিশ্বাস।

যশোর মেডিকল হাসপাতাল ও কলেজের গাইনি বিভাগের প্রধান ডাক্তার নিকুঞ্জ বিহারী গোলদার, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অবসরপ্রাপ্ত সহকারি পরিচালক ডাক্তার সঞ্জয় পাঠক ।

এ ছাড়াও ভার্চুয়াল বক্তব্য রাখেন, ভারতের বলুড় রামকৃষ্ণ বিদ্যামদির আবাসিক কলেজের অবসরপ্রাপ্ত রীডার ও বিভাগীয় প্রধান (বাংলা) অধ্যাপক ড. মহিতোষ বিশ্বাস, দক্ষিণ আফ্রিকার ভ্রাইবার্গ সরকারি হাসপাতালর জেনারল সার্জন জগবন্ধু দাম, কানাডার ডিজিটাল ফিন্যান্স ট্রান্সফরমেশনের জেষ্ঠ্য ব্যাবস্থাপক ইঞ্জিনিয়র শ্যামল দাস, কানাডার সিটি অফ টেরটার জেষ্ঠ্য প্রকল্প ব্যাবস্থাপক ইঞ্জনিয়র প্রিতিষ রায়, লন্ডন নাগরিক উপদেশ ব্যুরোর ব্যারিস্টার উৎপল বিশ্বাস। এ সময় মঞ্চে ছিলেন, অংকন লিমিটেডের কর্ণধার ইঞ্জিনিয়র অলোক রায়, প্রানি সম্পদ কর্মকর্তা প্রভাষ গোস্বামী, কষি কর্মকর্তা হিরক বিশ্বাস, কষিকর্মকর্তা ইভা মল্লিক, ডাক্তার আশীষ বিশ্বাস ও স্বপন অধিকারী।

সংগঠন সূত্রে জানা যায়, যশোরের বাঘারপাড়া ও নড়াইলের সদর থানা এবং তিনটি সংসদীয় এলাকার ( যশের-৪, নড়াইল-১ ও ২) এগারো গ্রাম নিয়ে এগারাখান অঞ্চল । এগারোখানের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছাড়াও এ অঞ্চলের শিক্ষার্থী যারা বাইরে অধ্যায়ন করে মেধার স্বাক্ষর রাখে, তাদরও সংবর্ধীত করা হয়।

২০১২ সালে এগারাখানের গুনীজন সম্মাননার মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করে ইডিএফ। এরপর ২০১৩ সালে মেডিকেল ও বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তী হওয়া শিক্ষার্থীদের সংবর্ধীত করা হয়।

২০১৪ সাল থেকে তারা এগারোখানের পিএসসি, জেএসসি, এসএসসি, এইচএসসি, মেডিকেল অধ্যায়নের সুযোগ, ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে অধ্যায়নের সুযোগ, বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যলয়ে অধ্যায়নরত সুযোগপ্রাপ্ত শিক্ষার্থী ছাড়াও কৃষিতে বিশেষ অবদানের জন্য সংবর্ধনা ও ক্রেষ্ট প্রদান করে আসছে। এ বছর সংগঠনটি ৭০জন কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রদান করেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন , বাপ্পা সরকার ও বিলাশ সরকার।

উল্লখ্য, এ বছরই প্রথম এগারাখান আন্তর্জাতিক ভিডিও কনফারন্সের আয়োজন করা হয় এবং এখানে ছয়টি মহাদেশের কৃতি সন্তানরা অংশগ্রহন করেন।

স/ম

Print Friendly, PDF & Email
Spread the love

Warning: A non-numeric value encountered in /home/chomoknews/public_html/wp-content/themes/Newspaper/includes/wp_booster/td_block.php on line 997