নবাবগঞ্জে করতোয়া নদী ভাঙ্গনে নিঃস্ব শতাধিক পরিবার

নবাবগঞ্জে করতোয়া নদী ভাঙ্গনে নিঃস্ব শতাধিক পরিবার

আব্দুল আজিজ, হিলি প্রতিনিধি। দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে করতোয়া নদীর ভাঙ্গনে বাড়ি ঘর ভাঙ্গিয়ে নিঃস্ব হয়েছেন শতাধিক পরিবার। আতঙ্কে অনেকেই ভিটে মাটি ছাড়িয়ে আশ্রয় নিয়েছে অনত্র। হুমকির মুুখে আছে বাড়ি ঘর, মসজিদ, কবরস্থান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বেস কিছু স্থাপনা। কয়েকটি গ্রাম নদীগর্ভে বিলিন হয়ে যাওয়ার শংঙ্কা স্থানীয়দের। তবে ব্যবস্থা নেওার আশ্বাস দিয়েছেন স্থানীয় জন প্রতিনিধিরা।

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের সিরাজ, ফকিরপাড়া, বালুয়া এবং জাতেরঘাট গ্রামের শতাধিক পরিবার ঘর বাড়ি হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে পরেছে। গত কয়েক বছরে মসজিদ, কবরস্থানসহ একরে পর এক বাড়ি করতোয়ার বুকে বিলিন হয়ে নিঃস্ব হয়েছেন প্রায় শতাধিক পরিবার।

www.linkhaat.com

চলতি মাসে উযানের পানি বয়ে এসে হুমকির মুখে রয়েছে আরও কয়েকশ বাড়িসহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। অনেকেই ঘর বাড়ি সরিয়ে নিয়েছেন নিরাপদ জায়গাই। ভাঙ্গন ঝুকিতে থাকা বস ভিটা হারানোর আতঙ্কে দিন কাটছে অসংখ্য পরিবারের। ভিটে মাটি রক্ষায় করতোয়া নদী ভাঙ্গন রোধে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি এলাকাবাসীর।

কথা হয় কয়েক জন ভুক্তভোগীর সাথে। তারা জানান, উজানের পানি আসার কারনে তাদের ঘর-বাড়ি সব করতোয়া নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। সরকার থেকে তাদের যে ঘরগুলো উপহার দিয়েছিলো সেগুলোও করতোয়ার বুকে বিলীন হয়েছে এমনকি তাদের মধ্যে অনেকেরই ফসলি জমি নদীর বুকে হারিয়ে গেছে। অনেকেই নিঃস্ব হয়েছে।

তারা আরও জানান, অতিরিক্ত স্রোতের কারনে বাঁধ ভেঙ্গে গেছে। পানি ঢুকতে শুরু করে ফসলি জমির মধ্যে। যার ফলে মাঠের শতশত বিঘা ফসল নষ্ট হওয়ার আশংঙ্খা করছেন কৃষকরা। সরকার যদি এখনি পদক্ষেপ না দেয় তাহলে অল্প কিছু দিনের মধ্যে নবাবগঞ্জ উপজেলার মানচিত্র থেকে হারিয়ে যাবে গ্রামটি।

এদিকে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়ে নবাবগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান জানান, অতিরিক্ত বৃষ্টির কারনে দাউদপুর, বিনোদনগড় ইউনিয়নসহ কয়েকটি গ্রাম করতোয়া নদীর পানিতে ভেঙ্গে যাচ্ছে। ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি বাড়ি, মসজিদ, কবরস্থান ভেঙ্গে গেছে এবং একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় হুমকির মুখে রয়েছে।

তিনি আরও জানান, পানি উন্নয়ন বোডসহ দিনাজপুর ডিসি মহদোয়কে তিনি অনুরোধ করবেন এবং লিখিত দিবেন যেন খুব দ্রুত ভাঙ্গন এলাকাটি একটি ব্যবস্থা গ্রহন করেন।

স/এষ্

Print Friendly, PDF & Email
Spread the love