আমিন আমিন ধ্বনিতে বিশ্ব ইজতেমা সমাপ্তি

শাহজাহান শোভন, টঙ্গী থেকে : ইহকালের শান্তি, পরকালের মাগফেরাত এবং বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর সুখ-শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে গতকাল রোববার বেলা ১১টা ৮মিনিট থেকে শুরু করে ১১টা ৪৬মিনিট পর্যন্ত টানা ৩৮মিনিট মোনাজাত পরিচালনা করছেন বাংলাদেশের তাবলিগের প্রধান মারকাজ কাকরাইলের মুরব্বি হাফেজ মাওলানা জোবায়ের।

www.linkhaat.com

দেশ বিদেশী তাবলীগ জামাতের আ’লমে শূরার তত্ত্বাবধানে ১০ জানুয়ারি শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া ইজতেমার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হল। মাঝে ৪দিন বিরতি দিয়ে সা’দ অনুসারীদের বিশ^ ইজতেমা ১৭ জানুয়ারি শুক্রবার থেকে শুরু হয়ে ১৯ জানুয়ারি রবিবার আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবারের ৫৫তম বিশ্ব ইজতেমা।

সৃষ্টিকর্তা আল্লাহতায়ালার প্রশংসা, হজরত রাসূলে কারিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামে ওপর দরুদ পাঠের মাধ্যমে তিনি মোনাজাত শুরু করেন। মোনাজাতে তিনি ইজতেমার কামিয়াবি, অংশগ্রহণকারীসহ সব মুসলমানদের গোনাহ মাফ, দুনিয়া ও আখেরাতের কল্যাণ, বিশ্ব শান্তি, বিশ্ববাসীর সুখ-সমৃদ্ধি কামনা করছেন।

এ সময় লাখো লাখো মানুষের কান্নার আওয়াজে ইজতেমার ময়দানে এক অভূতপূর্ব পরিবেশ সৃষ্টি হয়। আমিন আমিন ধ্বনিতে প্রকম্পিত হয়ে উঠে তুরাগ তীর। ইজতেমার আখেরি মোনাজাতে প্রায় ৪০ লাখ মুসল্লী অংশগ্রহণ করেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ইজতেমার ইতিহাসে এবারই প্রথম স্মরণকালের সবচেয়ে বেশি মুসল্লীদের আগমন ঘটেছে। ইজতেমা ময়দান ছাড়াও প্রায় তিন কিলোমিটার দূর পর্যন্ত মুসল্লীদের মোনাজাতে সুবিধার্থে মাইকের ব্যবস্থা করেছেন তথ্য অধিদপ্তর।

বিশ্ব ইজতেমার এই পর্বের আখেরী মোনাজাতে অংশগ্রহণ করেছেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ধর্মপ্রতিমন্ত্রী শেখ মো: আব্দুল্লাহ, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আলহাজ¦ জাহিদ আহসান রাসেল এমপি, গাজীপুর সিটি মেয়র মো: জাহাঙ্গীর আলম, সংসদ সদস্য, বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি পদস্থ কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ।

এর আগে রোববার বাদ ফজর ইজতেমা ময়দানে মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে হেদায়েতি বয়ান পেশ করেন পাকিস্তানের মাওলানা জিয়াউল হক। আখেরি মোনাজাতের আগে বিশেষ বয়ান করেন ভারতের মাওলানা ইব্রাহিম দেওলা।

এদিকে তিনদিনের জামাতের বাইরে সকালে আখেরি মোনাজাতে শরিক হতে ভোর ৪টা থেকে রাজধানী ঢাকা, গাজীপুরসহ আশপাশের এলাকা থেকে লাখ লাখ মানুষ স্রোতের মতো পায়ে হেঁটে ছুটে আসেন ইজতেমা ময়দানের দিকে।

ফলে উত্তরে গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তা দক্ষিণে বিমানবন্দর থেকে টঙ্গীমুখী ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়। এছাড়া শাখা রোডগুলো থেকেও কোনো যানবাহন সড়কে প্রবেশ করতে দেয়নি পুলিশ।

ইজতেমার মুরব্বিদের সূত্রে জানা গেছে, ইজতেমায় সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব-আমিরাত, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, চাঁদ, ইথিওপিয়া, ফ্রান্স, জার্মানি, ভারত, পাকিস্তান, রাশিয়া, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ আফ্রিকা, স্পেন, সুইজারল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া, কাজাখস্তান, খিরগিজস্থান, মালয়েশিয়া, মরক্কো, নেপাল, কেনিয়া, কুয়েত, কাতার, বাহরাইন, জর্দান ও দুবাইসহ বিশ্বের ৬১টি দেশের প্রায় ১ হাজার ৯শ’ বিদেশি মুসল্লি অংশ নিয়েছেন।

এছাড়াও ইজতেমা ময়দান ঘুরে দেখা যায়, সাধারণ জামাতের পাশাপাশি প্রতিবন্ধী ও বাকপ্রতিবন্ধীরাও এই বিশ্ব ইজতেমার জামাতে অংশ নিয়েছেন। বিশ^ ইজতেমা ময়দান থেকে কেউ এক মাস, কেউ তিন মাস, কেউ এক বছর, কেউ আজীবন চিল্লা দেওয়ার ঘোষণাও দিয়েছেন অনেক জামাতের সাথী ভাইয়েরা।

ইজতেমায় ১২ মুসল্লির মৃত্যু এবারের ২০২০ সালের বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে আসা ১২ মুসল্লীর মৃত্যু হয়েছে। টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে আরও তিন মুসল্লি মারা গেছেন। শনিবার বিকেলে ও রাতে তাদের মৃত্যু হয়। এনিয়ে প্রথম পর্বের বিশ্ব ইজতেমায় গত চারদিনে ১২ মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে।

বিশ্ব ইজতেমার পুলিশ কন্ট্রোল রুম সূত্রে জানা গেছে, শনিবার বিকেল সোয়া ৫টায় কিশোরগঞ্জের কটিয়াদি থানার গুচিহাটা গ্রামের নুর ইসলাম (৫৫), রাত সাড়ে ১০টায় কক্সবাজারের টেকনাফ থানার সাব্রাম এলাকার আলী আহমদ (৬০) ও রাত পৌনে ১টায় জয়পুরহাটের পাঁচবিবি থানার আব্দুল মোমিন (৫৬) মারা যান। এ নিয়ে প্রথম পর্বের বিশ্ব ইজতেমায় গত চারদিনে ১২ মুসল্লী মারা গেছেন।

মহিলাদের আখেরি মোনাজাতে অংশগ্রহণ
ইজতেমায় নারীদের অংশ নেয়ার কোনো বিধান না থাকলেও বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বে আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে বিভিন্ন এলাকা থেকে হাজার হাজার নারী ইজতেমা ময়দানের আশপাশে অবস্থান নিয়েছে। গতকাল রোববার ফজরের নামাজের পর থেকে ইজতেমা ময়দানের পাশে টঙ্গী হাসপাতাল মাঠ, স্টেশন রোডে, রাস্তার উপরে ও আশপাশের মিলকারখানা, স্কুলে অবস্থান নিয়ে নারীরা মোনাজাতে অংশ নেয়।

আখেরি মোনাজাতের ফজিলত লাভের আশায় তারা মোনাজাতে শরিক হতেই ময়দানের আশপাশের এলাকায় পর্দার সঙ্গে অবস্থান নিয়েছেন বলে জানালেন কয়েকজন নারী।

মুসল্লীদের বাড়ি ফেরায় চরম দুর্ভোগ :

মোনাজাত শেষে মুসল্লীরা তাদের নিজ নিজ গন্তব্যে যাওয়ার সময় যানবাহন সংঙ্কটে পড়ে চরম দুর্ভোগের শিকার হন। মোনাজাত শেষে লাখ লাখ মুসল্লী ইজতেমা ময়দান থেকে বিভিন্ন গন্তব্যে স্রোতে মতো এক সাথে ফিরতে শুরু করলে এক পর্যায়ে মহাসড়ক এলাকা মানব বলয় সৃষ্টি হয়। এসব এলাকার রাস্তায় মুসল্লীর বাড়ি ফেরার স্রোতে কোন যানবাহন চলাচল করতে না পাড়ায় মহাসড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

২০২১ সালের ইজতেমা শুরু ৮ জানুয়ারি
২০২১ সালেও বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে দুই পর্বে। প্রথম পর্ব ৮জানুয়ারি শুরু হয়ে আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হবে ১০ জানুয়ারি। দ্বিতীয় পর্ব ১৫ জানুয়ারি শুরু হয়ে শেষ হবে ১৭ জানুয়ারি।

গতকাল রবিবার সকালে টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমার ময়দানে বিশ্ব তাবলিগের শীর্ষ মুরব্বিদের মাশওয়ারায় এ সিদ্ধান্ত হয়। মাশওয়ারায় আলমি শুরার সদস্য ছাড়া কাকরাইল ও রায়বেন্ডের মুরব্বিদের পাশাপাশি শীর্ষ উলামায়ে কেরাম ও বিভিন্ন দেশের মারকাজের দায়িত্বশীল ব্যক্তিরা এ মাশুহারায় উপস্থিত ছিলেন।

স/এস্

700
Print Friendly, PDF & Email