রোহিত ঝড়ে উড়ে গেল বাংলাদেশ

নিজেস্ব প্রতিনিধি : প্রথম ম্যাচে শফিউল ইসলামের এলবির ফাঁদে পড়ে প্রথম ওভারেই ফিরেছিলেন রোহিত শর্মা। দলকে এগিয়ে নিতে ব্যর্থ হয়েছিলেন অন্যরাও। তবে এবার আর বাংলাদেশকে কোনো সুযোগই দেননি ভারতীয় অধিনায়ক। দুর্দান্ত ওপেনিং জুটির পর ৮৫ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে দলকে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে দেন তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশকে আট উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে ভারত। এই জয়ের সুবাদে তিন ম্যাচের সিরিজ ১-১-এ সমতায় নিয়ে এসেছে স্বাগতিকরা। আগামী রোববার নাগপুরে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে মুখোমুখি হবে তারা।

রাজকোটের সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের দেওয়া ১৫৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দারুণ শুরু করেন দুই ভারতীয় ওপেনার রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ান। ম্যাচটি ছিল রোহিতের শততম টি-টোয়েন্টি। এমন ম্যাচে ব্যাটিং ছন্দে স্মরণীয় করে রাখলেন ভারতীয় ওপেনার। মাত্র ২৩ বলে তুলেন নিলেন হাফসেঞ্চুরি। শেষ পর্যন্ত ৪৩ বলে ৮৫ রান করেন। ছয়টি চার-ছক্কায় ইনিংসটি সাজান তিনি। এটি ছিল তাঁর ১৮তম হাফসেঞ্চুরি।

অবশ্য আরেক ওপেনার শিখর ধাওয়ান খুব একটা ঝড় তুলতে পারেননি। ২৭ বলে ৩১ রান করে আমিনুল ইসলাম বিপ্লবের শিকার হন। ১১৮ রানে থামে স্বাগতিকদের ওপেনিং জুটি।

এরপর শেষের দিকের ব্যাটসম্যানদের উপর নির্ভর করে নির্ধারিত ওভারের ২৬ বল আগেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় ভারত।

বল হাতে দেদারসে রান বিলিয়েছেন বাংলাদেশি বোলাররা। শুধুমাত্র স্রোতের বিপরীতে ভালো করেছেন বিপ্লব। চার ওভার বোল করে ২৯ রান দিয়ে দুই উইকেট নিয়েছেন এই তরুণ লেগস্পিনার।

এরআগে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নামে দারুণ করেন দুই ওপেনার লিটন দাস ও মোহাম্মদ নাঈম। ওপেনিংয়ে দুইজনে মিলে গড়েন ৬০ রানের জুটি।

এরই মধ্যে ভারতীয় উইকেটকিপার ঋষভ পন্তের ভুলে একবার একবার জীবন পান লিটন দাস। পঞ্চম ওভারে যুজবেন্দ্র চাহালের বিপক্ষে ব্যাট করছিলেন তিনি। বলটি মোকাবিলা করতে গিয়ে উইকেটের বাইরে চলে আসেন বাংলাদেশি ওপেনার। বল ধরে স্টাম্প ভাঙতে ভুল করেননি ভারতীয় উইকেটকিপার পন্ত। মুহূর্তের মধ্যে মনে হয়েছিল লিটন আউট!

না, লিটন আউট হননি তখন। উইকেটকিপার পন্ত ভুল করেছিলেন। পরে টিভির রিপ্লেতে দেখা যায়, বল ধরার সময় পন্তের গ্লাভসের সামান্য অংশ চলে আসে স্টাম্পের সামনে! যে কারণে তখন বেঁচে যান লিটন। অবশ্য জীবন পেয়ে সেটা কাজে লাগাতে পারেননি লিটন। দুই ওভার বাদে সেই রানআউটের শিকার হয়েই সাজঘরে ফিরে যান।

১২ ওভারে বাংলাদেশ শিবিরে বড় আঘাত হানেন যুজবেন্দ্র চাহাল। এক ওভারে ফিরিয়ে দেন সৌম্য সরকার ও মুশফিকুর রহিমকে। ফেরার আগে ২০ বলে ৩০ রান করেন সৌম্য। আর আগের ম্যাচে বাংলাদেশকে জেতানো মুশফিক করেন মাত্র ৪ রান।

গুরুত্বপূর্ণ ব্যাটসম্যানদের হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়ে যায় বাংলাদেশ। শুরুর ছন্দ হারিয়ে শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ওভারে ৬ উইকেটে ১৫৩ রান করে সফরকারীরা। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ করেন ৩০ রান। তরুণ ওপেনার নাঈম করেন ৩৬ রান। আফিফ হোসেনের ব্যাট থেকে আসে ৬ রান। ৭ রান করেন সৈকত। বিপ্লব করেন ৫ রান।

ভারতের হয়ে বল হাতে ২৮ রান দিয়ে সর্বোচ্চ ২ উইকেট নেন চাহাল। সমান একটি করে নেন ওয়াশিংটন সুন্দর, দিপক চাহার ও খলিল আহমেদ।

স/এষ্

Print Friendly, PDF & Email