শিল্পায়ন করব, তবে কৃষিকে বাদ দিয়ে নয় : প্রধানমন্ত্রী

ফাইল ফটো

নিউজ ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘বাংলাদেশ কৃষিনির্ভর দেশ। কৃষকই বাংলাদেশকে বাঁচিয়ে রাখবে। কৃষক ফসল ফলায়, আমরা খেয়ে-পরে বাঁচি। জনসংখ্যা বাড়বে, খাদ্য চাহিদাও বাড়বে। একটি সমাজের জন্য, একটি দেশের জন্য কৃষক খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’

শেখ হাসিনা আরো বলেছেন, ‘কৃষকের স্বার্থ রক্ষার পাশাপাশি আমরা উন্নত হব, শিল্পায়ন করব, তবে কৃষকদের বাদ দিয়ে নয়; কৃষিকে বাদ দিয়ে নয়। আমাদের উন্নয়নে কৃষকদের সব সময় গুরুত্ব দিয়ে থাকি।’

আজ বুধবার রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কৃষক লীগের দশম জাতীয় সম্মেলনে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘দেশ যখন স্বাধীন হয়ে‌ছিল, তখন ৮২ ভাগ মানুষ দা‌রিদ্র্যসীমার নি‌চে ‌ছিল। কৃষ‌কের চেষ্টা এবং কৃ‌ষি গ‌বেষণার ফ‌লে বাংলা‌দেশ আজ খা‌দ্যে উদ্বৃত্তের দে‌শে প‌রিণত হ‌য়ে‌ছে। এ অবদান কৃষ‌কের। দেশ আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পন্ন হ‌চ্ছে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কৃষক ও কৃষি বাদ দিয়ে দেশের শিল্পোন্নয়ন নয়। যেখানে তিন ফসল, ফলে সেখানে নয়; দুই ফসল হয় এমন জায়গায়ও নয় এক। আমরা শিল্প অঞ্চল করছি, সেখানে শিল্পকারখানা হবে। সরকারের প্রধান লক্ষ্য হচ্ছে কৃষকদের অধিকার রক্ষা করা। কারণ, খাদ্য ও পুষ্টি কৃষি সরবরাহ করে কৃষিই আমাদের বাঁচিয়ে রেখেছে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল করে দিচ্ছি। যদি কেউ সেখানে শিল্প স্থাপন করতে চায় সেখানে তাদের প্লট দেওয়া হবে। সব ধরনের সুযোগ সুবিধা দেওয়া হবে। সেখানেই শিল্প গড়ে তুলবে। আমার কৃষি জমি বাঁচাতে হবে। প্রায় ১৬ কোটি মানুষকে খাবার দিতে হবে। আমরা খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। এখন আমরা পুষ্টির দিকে নজর দিয়েছি। ডিম উৎপাদন বাড়াচ্ছি। মিঠা পানির মাছ উৎপাদনে আমরা স্বয়সম্পূর্ণ। সবজি উৎপাদনে আমরা দ্বিতীয় অবস্থানে আছি।’

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, সর্বভারতী কিষাণ সভার সাধারণ সম্পাদক অতুল কুমার অঞ্জন, কৃষক লীগের সভাপতি মোতাহের হোসেন মোল্লা ও সম্পাদক খন্দকার শামসুল হক রেজা।

এর আগে জাতীয় সংগীতের সঙ্গে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, কবুতর ও বেলুন উড়িয়ে কৃষক লীগের ত্রিবার্ষিক কাউন্সিলের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।

বার্তা সংস্থা ইউএনবি জানিয়েছে, কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক সাংগঠনিক প্রতিবেদন পাঠ করেন এবং অফিস সেক্রেটারি নাজমুল ইসলাম পাটোয়ারী শোকপ্রস্তাব পাঠ করেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি ও কৃষকদের উন্নয়নে ১৯৭২ সালের ১৯ এপ্রিল কৃষক লীগ প্রতিষ্ঠা করেন।

বাংলাদেশ কৃষক লীগের সর্বশেষ কাউন্সিল ২০১২ সালের ১৯ জুলাই অনুষ্ঠিত হয়, যেখানে মোতাহের হোসেন মোল্লা ও খন্দকার শামসুল হক রেজা যথাক্রমে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

স/এষ্

Print Friendly, PDF & Email