মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক করিম উদ্দিন আহমেদ এর মৃত্যুবার্ষিক আজ

আজ লালমনিরহাটের জেলার মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব করিম উদ্দিন আহমেদ এর ২৮ তম মৃত্যুবার্ষিক।

১৯২৩ সালের ১৯ মার্চ কালীগঞ্জের কাশিরাম গ্রামে তাঁর জন্ম।কৃষক পরিবারের সন্তান সময়ের পরিক্রমায় তিনি একজন ব্যবসায়ী ও জননেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হন।

১৯৫৪ সালে ইউনিয়নবোর্ডে নির্বাচিত হওয়ার মাধ্যমে রাজনীতিতে আত্মনিয়োগ করেন। ১৯৭০ সালে তিনি পূর্বপাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন। বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর করিম উদ্দিন আহমেদ ১৯৭৩ সালে স্বাধীন বাংলাদেশের আইনসভার সদস্য নির্বাচিত হন।

শিক্ষিত ও জ্ঞানভিক্তিক সমাজ নির্মানের লক্ষ্যে তিনি স্কুল,কলেজ,মাদরাসা ও এতিমখানা প্রতিষ্ঠা করেছেন লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জে।তাঁর সন্তানদের উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত করে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।তাঁর সন্তানদের প্রত্যকেই স্ব স্ব অবস্থান থেকে দেশের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন।

তাঁর সন্তানদের মধ্যে ২ জন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের তৃনমূল রাজনীতিতে দক্ষতার সাথে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। তার সন্তানদের মধ্যে, জনাব নুরুজ্জামান আহমেদ এমপি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী হিসেবে, সাবেক ছাত্রনেতা জনাব মাহবুবুজ্জামান আহমেদ কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হিসেবে এবং ওয়াহেদুজ্জামান আহমেদ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আঞ্চলিক পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

১৯৯১ সালের ২৮ আগস্ট ৬৮ বছরের বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবনের অবসান ঘটিয়ে পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করেন সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব করিম উদ্দিন আহমেদ।

লেখক-স. এম. নাহিদ হাসান (নয়ন),সভাপতি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় লিডারশীপ ডেভেলপমেন্ট সোসাইটি।

Print Friendly, PDF & Email